বিনোদন

SIXTH OXFORD BOOKSTORE BOOK COVER PRIZE 2021

Digital Desk, 22 January,21, Kolkata: The shortlist of the Oxford Bookstore Book Cover Prize’s sixth edition will be announced virtually by Oxford Bookstore followed by the winner announcements at Jaipur BookMark of Jaipur Literature Festival in February.
In its first year, the prize was given to designer, Bena Sareen for the book, Talking of Justice by late author, Leila Seth, published by Aleph followed by Pinaki De, for the second year who was declared winner for book Kalkatta authored by Kunal Basu, published by Picador India. The third Oxford Bookstore Book Cover Prize was awarded to Maithili Doshi Aphale for the book Himalaya authored by Ruskin Bond and Namita Gokhale, published by Speaking Tiger. In the fourth year the prize was awarded to Bonita Vaz Shimray for the book Remnants of a Separation by Aanchal Malhotra published by Harper Collins. In the fifth edition, the prize was handed over to Sneha Pamneja for Tiffin, published by Roli Books.

মধ্য গগনের দিকে স্নেহা

ডিজিটাল, 3 অক্টোবর, কলকাতা: বাংলা ধারাবাহিকগুলোতে এখন একটি জনপ্রিয় নাম স্নেহা,– স্নেহা বিশ্বাস। স্নেহা উত্তর ২৪ পরগনা বারাসাতের মেয়ে। রবীন্দ্রভারতী থেকে স্নাতক হওয়ার আগেই ভালোবাসার গভীরে প্রোথিত হয় অভিনয়।

খুব ছোট বয়স তখন স্নেহার, চার কি পাঁচ বয়স বছর হবে, তখন থেকে নাচের তালিম নিতে শুরু করে। ভারতনাট্যম কথ্বক এবং আধুনিক নাচের সাথে নিজেকে পারদর্শী করে তুলেছে নিজের নিষ্ঠা এবং পরিশ্রম দিয়ে। স্নেহার বক্তব্য : সবার জীবনেই স্ট্রাগল থাকে, আমার জীবনেও ছিল। বলা যায় এখনো রয়েছে। আসলে স্ট্রাগলটাকে আমি খুব এনজয় করি। কারন স্ট্রাগল না থাকলে জীবনটা সম্পূর্ণ হয় না, আসে না সফলতা।

আগামী দিনের একজন ভালো মানুষ হয়ে থাকার পাশাপাশি একজন ভালো অভিনেত্রী এবং অবশ্যই একজন সফল মডেল হতে চায় স্নেহা। ইতিমধ্যেই “ক্ষীরের পুতুল”, “দুর্গা”, “বামাক্ষ্যাপা” “বকুল কথা” প্রভৃতি জনপ্রিয় ধারাবাহিকে পার্শ্বচরিত্রে অভিনয় করেও যথেষ্ট সুনাম অর্জন করেছেন। জনপ্রিয় বাংলা ধারাবাহিক “জয়ী”তে একটি পার্শ্বচরিত্র অভিনয় করে যথেষ্ট সুনাম পেয়েছে। বলা যায় এই অভিনয়ের দৌলতেই এবার তার পা পড়তে চলেছে দক্ষিণ ভারতের সিনেমা জগতে।

এদেশে অনেক নামিদামি শিল্পীরাই দক্ষিণ ভারতের জনপ্রিয় সিনেমাগুলোতে অভিনয় করেছেন। আশা করা যায় টলিউড তেমন একজন স্নেহাকে প্রথম সারিতে খুব তাড়াতাড়ি দেখতে পাবে।

ঘরে বসেই “ঝড়ের রাত”

শুভাবরি ওয়েব ডেস্ক,২৪ অগাষ্ট, কলকাতা: ক্রাইম থ্রিলারের উপর তৈরী বেলা ব্যানার্জী প্রোডাকশান প্রযোজিত ছবি “ঝড়ের রাত” খুব শীঘ্রই মুক্তি পেতে চলেছে। ছবিটির পরিচালনা করেছেন বাদশা খান ছবি খ্যাত নায়ক, পরিচালক, চিত্রনাট্যকার দেবরাজ ব্যানার্জী।
১১ জন শিল্পী নিয়ে তৈরী এই ছবির বিশেষত্ব হলো শিল্পীরা যে যার ঘরে বসেই শুটিংটা করেছেন। সব শিল্পীদের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে পরিচালকের এই সিদ্ধান্ত। ছবিটিতে পরিচালক দেবরাজ ব্যানার্জী ছাড়াও অভিনয় করেছেন ত্রিদিব ঘোষ, সিদ্ধার্থ রায়, আনন্দ মোহন দে, শুভজিৎ কড়েয়া, অভিজিত সাহা, মহাদেব মন্ডল, প্রসেনজিত সাহা, প্রবাল বিশ্বাস, পৌলমী এবং সোমা।
এইভাবে যে যার ঘরে বসেও যে ক্রাইম থ্রিলার বানানো সম্ভব সেটা শিল্পীরা করে দেখিয়েছেন। রহস্যে মোড়া এই ছবি দর্শকদের মন জয় করবে এমনটাই বিশ্বাস রাখেন পরিচালক।
যার সহযোগিতা ছবিটির শিরা-উপশিরায় ছড়িয়ে আছে সেই ব্যক্তিটি হলেন মৃত্যুঞ্জয় রায়। তার অবদান ছবিটিতে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ। বেলা ব্যানার্জী প্রোডাকশানের তরফ থেকে মৃত্যুঞ্জয় রায়কে অশেষ ধন্যবাদ জ্ঞাপন করা হয়।

‘ আতঙ্ক ‘র মুক্তি

ওয়েবডেস্ক, আগস্ট,কলকাতা: ৩৭ টি আর্টিস্ট নিয়ে তৈরী হলো একটি ছবি যার নাম — “আতংক”। এই ছবির বিশেষ বৈশিষ্ট্য হলো প্রতিটি আর্টিস্ট যে যার নিজের ঘরে বসে তাদের মোবাইল দিয়ে শুটিং করেছে। এক রহস্যময় ঘটনা নিয়ে তৈরী এই ছবি। ছবিটি পরিচালনা করেছেন বাংলা সিনেমার এক সফল পরিচালক, চিত্রনাট্যকার ও অভিনেত্রী শিউলী রামানি গোমস। পরিচালনার পাশাপাশি তিনি এই ছবির মূখ্যচরিত্রে অভিনয়ও করেছেন। ছবিটিতে অভিনয়ের পাশাপাশি ছবিটির এডিটিং করেছেন বাদশা খান ছবি খ্যাত পরিচালক, নায়ক ও চিত্রনাট্যকার দেবরাজ ব্যানার্জী।
আতংক ছবিটি বাংলা ছবির জগতে এক নতুন ধারণার সৃষ্টি করলো যে ঘরে বসে এক ঝাঁক শিল্পী নিয়ে এইভাবেও ছবি তৈরী করা সম্ভব।
এই ছবিতে স্বনামধন্য কিছু পরিচালক এবং সাংবাদিক ও চিত্রসাংবাদিক ব্যক্তিত্বরাও অভিনয় করেছেন। তাদের এই সম্পূর্ণ সহযোগিতাও ছবিটিকে তৈরী করতে সাহায্য করেছে। ছবিটিতে বিশেষ সহযোগিতা করেছেন মৃত্যুঞ্জয় রায়।

অভিনয় করেছেন:
শিউলী রামানি গোমস, দেবরাজ ব্যানার্জী, শুভ ব্যানার্জী, মৃত্যুঞ্জয় রায়, মিস জিনজা, দীপ দাস, সাত্যিকি চৌধুরী, বিমল দে, সমাপ্তি রায়, আংশি সাহু, স্বপন মাহাতো, সন্তোষ মাহাতো
ত্রিদিব ঘোষ, শুভজিত কড়েয়া, আনন্দ মোহন দে, প্রবাল বিশ্বাস, সিদ্ধার্থ রায়, নাড়ুগোপাল মন্ডল, অভিজিত ভট্টাচার্য্য, প্রিয়াঙ্কা হালদার, বেলা ব্যানার্জী, কুমার অভিজিত, জয়ন্ত পারবত,
লরেন্স গোমস ,নুপুর মুখার্জি, পৌলমী, চিত্রলেখা ব্যানার্জী, অলোক চ্যাটার্জী, সোনিয়া চক্রবর্তী, বিজয় শেঠ, ডলি শেঠ, শুভম দা, চয়ন মুখার্জি, তুষার কান্তি চক্রবর্তী, সুশান্ত স্যার
অভিজিত মন্ডল, রাজীব বিশ্বাস.

আমাদের পাঠক এবং শ্রোতাদের আগ্রহ এবং পছন্দকে সামনে রেখে আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে আগামী সপ্তাহ থেকে শুরু হচ্ছে “গল্প শোনার আসর”। যেহেতু গল্পগুলো ধারাবাহিক ভাবে পাঠক এবং শ্রোতাদের শোনানো হবে সেই কারণে চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করে রাখলে শ্রোতারা নিয়মিতভাবে ভিন্ন ভিন্ন স্বাদের গল্প এবং উপন্যাসের স্বাদ নিতে পারবেন। আশা করি এই “গল্প শোনার আসর” শ্রোতাদের হতাশ করবে না।

অনুপের “করোনাস্ত্র”

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক, ১৫ মে, কলকাতা: করোনা থেকে বাঁচতে দীর্ঘদিন লকডাউনকেই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা একমাত্র উপায় বলে বলে দিয়েছে। তার সাথে চালাতে হবে টেস্ট এবং অন্যান্য চিকিৎসা।

কিন্তু ৪০ দিনের বেশি এই লকডাউন সচেতন মানুষের পক্ষেই মেনে চলা অসম্ভব হয়ে উঠছে। তাহলে শিশুদের মনের কি অবস্থা হবে । অফুরন্ত প্রাণশক্তিতে ভরপুর শিশুদের কথা ভেবে প্রযোজক ও অভিনেতা অনুপম পান তৈরি করেছেন স্বল্পদৈর্ঘ্যের একটি ছবি । যেটি ইউটিউবে পাওয়া। ছবিটির নাম দিয়েছেন একেবারে সময় উপযোগী— “করোনাস্ত্র”। বর্তমান সময়ে বাচ্ছাদের মানসিক অবস্থার উপর করোনার প্রভাব ও সেখান থেকে বেরানোর উপায় নিয়ে একটি মিষ্টি গল্প এখানে দেখানো হয়েছে।
তাই অন্যান্য যোদ্ধাদের সাথে অনুপ বাবুর ও ধন্যবাদ প্রাপ্য। জানা গেল ইন্দ্রানী দত্ত ছবিতে একটি বিশেষ চরিত্রে অভিনয় করেছেন। এছাড়াও
অভিনয় করেছেন: মাঃ অর্জুন, মাঃ সপ্তক এবং অনুপ পান।প্রযোজনা – আঙ্গুরবালা ফিল্মস। আবহ সঙ্গীত-নিলাদ্রি, সম্পাদনা -সায়ন দে, কাহিনী- চিত্রনাট্য এবং পরিচালনা অনুপ পান, পি আর- শুভঙ্কর।

https://youtu.be/l2Hp_mQ5Zq4

“সেতারের ঝংকারে” এ জুড়লো রাজস্থান ও বাংলা

“সেতারের ঝঙ্কার” গান ভিত্তিক একটি সিনেমা উপহার পেতে চলেছে বাংলার দর্শকরা। একদিকে যখন বাংলা সিনেমার ১০০ বছর পালন করার তোরজোড় চলছে তখন এমন একটি সিনেমা নিঃসন্দেহে ইঙ্গিতবাহক।
ছবিটির কাহিনী চিত্রনাট্য এবং পরিচালনা-শিউলি রামানী, প্রযোজক-রাজীব গোলচা, মিউজিক ডিরেক্টর: অশোক ভদ্র, গীতিকার, সুরকার দেবাশীষ রায়, কন্ঠ শিল্পী-নচীকেতা, কুমার শানু ।
সম্প্রতি “ও বন্ধু আমার”– ১০০ দিন পেরোনো সিনেমাটি দেখে বাংলা সিনেমায় প্রযোজনার অনুপ্রেরণা। জানালেন সিনেমার প্রযোজক রাজিব গোলচা।

—জীবনের আয়নায় কতকিছু দেখা যায়, সবকিছু মনে ধরে না.. চলচ্চিত্রায়িত করার জন্য রেকর্ডিং করা এই সিনেমার গানটি গেয়ে শোনালেন দেবাশীষ রায়।
ডাইরেক্টর গিল্ডের কর্ণধার বিমল দে বাংলা ছবিতে বিনিয়োগের জন্য ধন্যবাদ জানান প্রযোজককে। সেইসাথে প্রার্থনা করেন যেন আগামী দিনে আরও অবাঙালি মানুষ বাংলা ছবিতে বিনিয়োগের পথে এগিয়ে আসেন। বিমল বাবু মনে করিয়ে দেন, আজকের দিনটি কিন্তু নাট্যাচার্য গিরিশচন্দ্র ঘোষের জন্মদিন। তাই আজকের দিনে একটি সিনেমা তৈরি সূচনা শিল্পের এক অনন্য দিক বলে তিনি মনে করছেন।

অভিনয়ে-
মাধবী মুখার্জী, ধীরু ব্যানার্জি, স্বস্তিকা রায়, চয়ন মুখার্জি, সঞ্চিতা রায়, কুমার অভিজিৎ, শুভম দাস।
আধুনিক এপ্রিল মাস থেকে সিনেমার চিত্রগ্রহণ শুরু হবে বলে জানালেন পরিচালক শিউলি রামানী।

সেঞ্চুরি করল “ও বন্ধু আমার”

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক ,27ফেব্রুয়ারী,কলকাতা: এস এস এন্টারটেন্টমেন্ট নিবেদিত ‘ও বন্ধু আমার’-ছবিটি একশো দিন পার করলো । বুধবার কলকাতা প্রেস ক্লাবে তারই সেলিব্রেশন করা হলো। উপস্থিত ছিলেন ছবির কলাকুশলী, ছিলেন গল্পের নায়ক আদি এবং নায়িকা রুহী, বিশ্বজিত চক্রবর্তী, ডিরেক্টর সঞ্জয় দাস, প্রডিউসার গোপাল চৌধুরী প্রমুখ ।

ছবির গল্পের শুরুতেই কিছু বাজে লোক রুহীকে আক্রমণ করে। নায়ক আদি তাকে বাঁচানোর আপ্রাণ চেষ্টা করে কিন্তু তার ফাঁকেই কোনও একজন গুন্ডা লোহার রড দিয়ে রুহী’র মাথায় আঘাত করে। রুহী সেন্সলেশ হয়ে যায়। আদি তাকে নিয়ে হসপিটাল যায়। সমস্ত কিছু পরীক্ষা করে ডক্টর জানান, মাথায় জোরে আঘাত লাগার কারণে তার মেমরি লস্ হয়ে গেছে। সে কথা বলতে পারছেনা, কাউকে চিনতেও পারছেনা। তখন আদি রুহী’র বাবা-মা’য়ের সাথে কথা বলে ঠিক করে যে যতদিন না রুহী সুস্থ হয়ে উঠছে ততদিন আদি তার কাছে থেকে তার সেবা করবে।
এরপর শুরু হয় আদি’র জীবনের আসল লড়াই, ভালোবাসা ফিরে পাওয়ার লড়াই। আদি শেষ পর্যন্ত রুহী’কে ফিরে পাবে, নাকি তাকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনতে পারবে না… তাই ফুটে উঠেছে গল্পে।

উপস্থিত সমস্ত কলাকুশলীরা দর্শকদের ধন্যবাদ জানান যে তারা বাংলা সিনেমাকে এত ভালবাসেন । তাদের কথায় বারবার উঠে আসে যে সিনেমার শুটিং যদি বিদেশে করা হয় তাহলেই যে সিনেমা হিট করবে বা জনপ্রিয় হবে সেটা কিন্তু নয়। গল্প যদি ঠিকঠাক থাকে এবং তার গ্রহণযোগ্যতা যদি থাকে তাহলেই সেই ছবি জনপ্রিয়তা লাভ করবে। পরবর্তী সময় আরো নতুন নতুন সিনেমা দর্শকদের উপহার দেওয়ার জন্য প্রস্তুত ছবির নির্দেশক ও প্রযোজক।

“স্বপ্ন উড়ান” বই প্রকাশ

শুভাবরি ওয়েবডেক্স 14ফেব্রুয়ারি,কলকাতা: All India brotherhood Foundation এবং সংবাদ প্রভাকর টাইমস এর যৌথ উদ্যোগে আজ কলকাতা প্রেসক্লাবে প্রকাশিত হল Brotherhood Foundation এর বই প্রকাশ অনুষ্ঠান। “স্বপ্ন উড়ান” এই বইটি প্রকাশ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কলকাতা প্রেস ক্লাবের সম্পাদক কিংশুক প্রারমানিক, All India brotherhood Foundation এর ফাউন্ডার চেয়ারম্যান জয়ন্ত বন্দ্যোপাধ্যায়, সংবাদ প্রভাকর টাইমস এর editor-in-chief অনিরুদ্ধ পাল, রাজস্থান ট্যুরিজমের কলকাতার কর্ণধার হিঙলাজ ডন, আইনজীবী প্রসুন দত্ত প্রমূখ। এই অনুষ্ঠানে বিশিষ্টজনদের আজ সম্মানিত করা হয় ।

“বোস ক্রিয়েটিভ মিডিয়ার পথ চলা শুরু”

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক , 6 জানুয়ারি, কলকাতা : সময়ের দাবি মেনে তৈরি হয়েছিল অনেক হিন্দি ও বাংলা সিনেমা। তৈরি হয়েছিল নগর ‘দর্পণ,’ ‘হীরক রাজার দেশে। হিন্দি সিনেমার মধ্যে ‘কালিয়া’, ‘ক্রান্তি’ প্রভৃতি ।
বোস ক্রিয়েটিভ মিডিয়া ঠিক একইভাবে সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে এই দুটো সিনেমা প্রযোজনায় হাত দিয়েছেন। প্রথমটি “হিডেন স্টোরি” এবং দ্বিতীয়টি “সিন্ডিকেট”। ছবি দুটির প্রযোজক জানালেন, ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির বাইরে গজিয়ে ওঠা এক অবৈধ ফিল্ম জগতের বেদনা গাঁথা “হিডেন স্টোরি” । কাহিনী-চিত্রনাট্য-সংলাপ এবং পরিচালনা: সুমন দত্ত মজুমদার, সঙ্গীত পরিচালনা: ডি এম মনিকা, চিত্রগ্রহণ: শুভেন্দু । অভিনয়ে: বোধিসত্ত্ব মজুমদার, শান্তনা বসু, সুদীপ, কাঞ্চনা প্রমুখ।


দ্বিতীয় সিনেমা ‘সিন্ডিকেট’ তৈরি হচ্ছে কালের দাবি মেনে। কিভাবে সমাজের সু-সন্তানেরা পরিবেশ ও পরিস্থিতির শিকার হয়ে প্রবেশ করে অন্ধকারে। ঘাত-পতিঘাতের মধ্যে এগিয়ে চলা চার যুবকের বাস্তব লড়াই দর্শক পর্দায় দেখতে পাবে ২০২০র পুজোতে। জানালেন পরিচালক শঙ্কর দে। সিন্ডিকেটের কাহিনী-চিত্রনাট্য-সংলাপ : ভাস্কর । পরিচালক শঙ্কর দাবি করেন, বাংলা নতুন বছরে হিডেন স্টোরি পর্দায় আসছে। কলকাতার ওয়াই এম সি এর ফলে আজ এই সিনেমার সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন অভিনেতা বোধিসত্ত্ব মজুমদার, অভিনেত্রী ও পরিচালক শিউলি রামানী এবং প্রযোজক প্রনয় বোস।
নির্মল চরিত্রে অভিনয়ে পরিচিত বোধিসত্ত্ব এখানে একটি সিনেমায় ভিলেন চরিত্রে রূপদান করছেন। বোধিসত্ত্ব জানালেন, চরিত্রটি আমার কাছে চ্যালেঞ্জিং। তাই ২০২০ শুরুতে ই বুঝিয়ে দিল “এটা প্রতিবাদের বছর”।

“কোন দিকে যাবে।”

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,9নভেম্বর,কলকাতা: বিহান, দোয়েল এবং বব এই তিন নায়ক নায়িকা নিয়েই প্রসুন গাইন ইনিশিয়েটিভের প্রথম সৃষ্টি “কোন দিকে যাবে।” আজ কলকাতা প্রেসক্লাবে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করলেন, এই মাসের ১৩ তারিখে ইউটিউবে এই মিউজিক্যাল শর্ট ফিল্ম সমক্ষে আসতে চলেছে।
আজকের প্রেস কনফারেন্স কলাকুশলীদের সাথে টেকনিশিয়ানদের সবাইকে হাজির করেছিলেন প্রসুন। উপস্থিত ছিলেন গীতিকার সুরকার এবং কন্ঠ শিল্পী তীর্থ বিশ্বাস, সাউন্ড রেকর্ডিস্ট শুভ ভট্টাচার্য সহ অন্যান্যরা। একান্ত ভাবে তার থেকে জেনে নেওয়ার তথ্য আজ আপনাদের সামনে ।

https://youtu.be/_K1QTnAykSU

সেইসাথে প্রসূন এবং আমাদেরও অনুরোধ থাকলো, সবাই দেখবেন ইউটিউবে “কোন দিকে যাবে”। কে বলতে পারে, এটি হয়তো আগামী দিনে আপনাকেও পথ বলে দিতে পারে।

প্রথমা র মিউজিক ভিডিও

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,1নভেম্বর,কলকাতা: 8 বছর বয়স থেকে শ্রীমতি রেখা চট্টোপাধ্যায় এর কাছে গান শেখা শুরু। তার পরিবার সদস্যরা প্রায় সকলেই সাংস্কৃতিক জগতের মানুষ। বিশেষত তার বাবা-মা সংগীতজগতের সাথে জড়িত । জন্মগতভাবে বাঁকুড়া মেয়ে হলেও উচ্চ মাধ্যমিকের পরে কলকাতায় চলে এসে সংগীত কে খুব সাধনার সাথে শিখতে শুরু করেছিল প্রথমা দে। আজ কলকাতা প্রেস ক্লাবে প্রথমার মিউজিক ভিডিও প্রকাশ পেল নাম ‘লম্বি জুদাই’। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন নির্দেশিকা রেশমি মিত্র , গীতিকার গৌতম সুস্মিত, গীতিকার লীলাময় পাত্র এবং শিবাশীষ দিন্দা। শান্তনু ভট্টাচার্য, অনল চট্টোপাধ্যায় এর মতন বিশিষ্ট সংগীতজ্ঞের কাছে প্রথমা গানের চর্চা শুরু করে। রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক এবং বর্তমানে রবীন্দ্রভারতী রবীন্দ্রভারতী থেকেই স্নাতকোত্তর ক্লাসিকাল মিউজিক পাঠরতা । 2016 সালে সর্বভারতীয় সঙ্গীত পরিষদ থেকে স্বর্ণপদক প্রাপ্তি এবং প্রয়াগ সঙ্গীত সমিতি এলাহাবাদ পক্ষ থেকে সংগীত বিশারদ উপাধি পেয়েছেন।
‘লম্বি জুদাই’ যে মিউজিক ভিডিও আজ আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ পেলো তার নির্দেশনায় ছিলেন বাপ্পা অরিন্দম। উপস্থিত বিশেষ অতিথিরা প্রথমার এই প্রয়াসকে সাধুবাদ জানিয়ে এবং আগামী দিনে জীবনের লক্ষ্যে এগিয়ে যাওয়ার অগ্রিম শুভেচ্ছা জানান। মিউজিক ভিডিওটি ইউটিউব চ্যানেল PRATHAMAA তেও দেখা যাবে।

সকলকে নিয়ে ‘আমি’

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক, ১নভেম্বর, বৈশালী দে, কলকাতাঃ প্রকাশিত হলো বাংলা ভাষার নতুন ম্যাগাজিন ‘আমি’। আমি বলতে এখানে আমি-তুমি, নারী-পুরুষ সকলকেই বোঝানো হয়েছে বলে জানান ‘আমি’-র সম্পাদক মৌমিতা কুন্ডু।মাসিক এই ম্যাগাজিনে থাকছে নানা রকম গল্প, বিশেষত নারীদের বিষয়ে।এছাড়া রান্নার রেসিপি, বিউটি টিপস, স্বাস্থ নিয়ে নানা রকম লেখা।

আজকের এই অনুষ্ঠানে উপস্হিত ছিলেন
মৌমিতা কুন্ডু,অভিষেক কুন্ডু, বৈশাখী দাস, সাইনি মুখার্জী, অন্তরা সরকার সহ ‘আমি’-র প্রায় সকল সদস্যরা।

জেলা কেন্দ্রিক নাট্যোৎসব

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,25অক্টোবর,কলকাতা, বৈশালী দে:

জেলায় জেলায় নাট্যশিল্পকে খুঁজে নিয়ে,
পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলার নাট্য শিল্পকে কেন্দ্র করে “ইন্দ্ররঙ” এর উদ্যোগে আগামী ৩-৭ নভেম্বর কলকাতার মোহিত মৈএ মঞ্চে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে জেলা ভিত্তিক (কলকাতা ব্যতীত) প্রতিযোগিতা মূলক নাট্যোৎসব।

ইন্দ্ররঙের তরফে আজ সাংবাদিক বৈঠক করে সেকথা জানান উৎসব অধ্যক্ষ ব্রাত্য বসু। এছাড়াও বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন উৎসব আহ্বায়ক ইন্দ্রজিৎ চক্রবর্তী, অভিনেত্রী দেবযানী চট্টোপাধ্যায়, কাঞ্চন মল্লিক, দেবশঙ্কর হালদার প্রমুখ।

বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় দারুন থিয়েটার হচ্ছে। সেই সব থিয়েটারগুলো কলকাতার দর্শকদের সামনে তুলে নিয়ে আসাই হলো ইন্দ্ররঙ-এর অন্যতম প্রধান উদ্দেশ্য, জানান ব্রাত্য বসু।

নাট্য শিল্পকে নিয়ে অনুষ্ঠিত ইন্দ্ররঙ মহোৎসবের এটি তৃতীয়তম বর্ষ। এবারে মোট ১০টি বিভাগে অনুষ্ঠানের মনোনয়ন স্থির করা হয়েছে —-শ্রেষ্ঠ প্রযোজনা, শ্রেষ্ঠ নির্দেশনা, শ্রেষ্ঠ নাটককার, শ্রেষ্ঠ অভিনেতা, শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী, শ্রেষ্ঠ সহ-অভিনেতা, শ্রেষ্ঠ সহ অভিনেত্রী, শ্রেষ্ঠ মঞ্চসজ্জা এবং শ্রেষ্ঠ আবহ।

সম্মান জ্ঞাপন

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক, 23অক্টোবর,কলকাতা: সংগীতজগতের অনন্যা শিল্পী শ্রীমতি আরতি মুখোপাধ্যায় কে সম্মান জানানোর জন্য এক ঝাঁক সঙ্গীতশিল্পী আগামী 30 শে অক্টোবর বিকেল পাঁচটায় শোভাবাজার রাজবাড়িতে এক সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার আয়োজন করেছে। উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন সংগীত জগতের নামিদামি শিল্পীরা। পরিচালনা ও পরিকল্পনায় থাকবেন সুপ্রকাশ মুখোপাধ্যায়।

উৎসবের সূচনা

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক, ২ অক্টোবর, কলকাতাঃ লেক গার্ডেন্স মিতালী সংঘের শারদীয়া উৎসবের সূচনা হল । প্রদীপ প্রজ্জ্বলনের মাধ্যমে আজ শুভ চতুর্থীতে দ্বারোদ্ঘাটন হয়ে গেল দুর্গোৎসবের ।


৩৫ তম বছরের পূজা প্যান্ডেল উদ্বোধন করেন মডেল এবং সানন্দা তিলত্তমা বিজয়িনী মাধবীলতা মিত্র, অভিনেত্রী মারিয়া, আতিশ ভট্টাচার্য, ডিজাইনার তন্ময় বিশ্বাস। উপস্থিত ছিলেন সাধারণ সম্পাদক তপন দত্ত, যুগ্ম সম্পাদক অজয় দত্ত, কোষাধক্ষ্য অরিন্দম দত্ত। উল্লেখ্য, সারা বছর ধরে মিতালী সংঘ রক্তদান শিবির, বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা সহ বিভিন্ন সমাজসেবামূলক এবং সচেতনতা বৃদ্ধিতে নিজেকে যুক্ত করে রাখে।

সিডি প্রকাশ


বৈশালী দে, শুভাবরি ওয়েব ডেস্ক, ২৮ সেপ্টেম্বর, কলকাতা : সঙ্গীত প্রেমীদের জন্য নতুন কিছু গান নিয়ে শুভজিৎ এন্ড কোম্পানির তরফে আজ মুক্তি পেল শুভজিৎ দে-র বাংলা গানের নতুন এলবাম ‘ক্যানভাস’।

এলবাম রিলিজের এই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিল্পী মল্লার ঘোষ এবং পর্ণাভ বন্দ্যোপাধ্যায়।
এছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন টিম ক্যানভাসের অন্যান্য সদস্যরা।

পুজোয় এবার নতুন গান

বৈশালী দে, শুভাবরি ওয়েবডেস্ক, ২৫ সেপ্টেম্বর, কলকাতা : এবার পুজোয় নতুন ধরনের গান নিয়ে রাগা মিউজিকের উদ্যোগে কলকাতা প্রেস ক্লাবে আজ মুক্ত হলো আসন্ন পুজোয় নতুন দুটি গানের এলবাম, ‘ডিম ডিম ডিকা ডিকা’ (গায়ক-রিজু) ও ‘কোন রশিতে বাঁধিরে মন’ (গায়িকা-প্রান্তিকা)।

অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্হিত ছিলেন রাগা মিউজিকের কর্ণধার প্রেম গুপ্তা, অভিনেত্রী পারিজাত চক্রবর্তী, শিল্পী সনজিত মন্ডল, প্রদূত মুখার্জী ও অন্যান্য অতিথিরা।

পুজোয় গানের এলবাম করে শিল্পীরা খুবই খুশি। কারণ, তাদের আসা এবার পুজোয় গানগুলি চলবে। সঙ্গীত প্রেমীদের কাছে সিডি কিনে গান শোনার অনুরোধ রাখছেন শিল্পীদ্বয়।

বই ও সঙ্গীত প্রকাশ অনুষ্ঠান

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,24সেপ্টেম্বর,কলকাতা: হেমন্ত মুখার্জীর জন্মশতবর্ষকে কেন্দ্র করে, তার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ‘বিহান মিউজিক’-এর উদ্যোগে আজ কলকাতা প্রেস ক্লাবে হয়ে গেল বই ও সিডি প্রকাশের একটি অনুষ্ঠান।

অনুষ্ঠানে সংগীতশিল্পী শান্তুনু সেনগুপ্ত ও অনুমিতার গলায় গাওয়া রবীন্দ্র সঙ্গীতের (‘প্রভাতের প্রথিক’ ) একটি সিডি প্রকাশ করা হয়।এছাড়া অনিতেন্দু মোদক-এর লেখা ‘শ্রীরামকৃষ্ণ গিতামৃত’ বইটির প্রথম খণ্ড ও দ্বিতীয় খণ্ড প্রকাশ করা হয়।

আজকের এই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্হিত ছিলেন দেবাশিস বসু, দীপঙ্কর আচার্য, শান্তুনু সেনগুপ্ত, অনিতেন্দু মোদক প্রমুখ।
অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন মনীষা ভট্টাচার্য।

বিশেষ সংখ্যা প্রকাশ

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,24সেপ্টেম্বর,কলকাতা:

বাঙালীর শ্রেষ্ঠ উৎসবের অপেক্ষা মাত্র আর কয়েক দিনের। তারই মাঝে আজ প্রকাশ করা হলো ‘অনুবাদ পত্রিকা’-র বিশেষ শারদ সংখ্যা।

আজকের এই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্হিত ছিলেন অরুণাভ রায়, শ্রী রাম কুমার মুখোপাধ্যায়, জ্যোতিন্ময় দাস,মনন কুমার মন্ডল, সোনালী ঘোষাল প্রমুখ।

পুস্তক প্রকাশ

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,21সেপ্টেম্বর,বৈশালি দে,কলকাতা: বই প্রেমীদের জন্য নতুন স্বাদের কিছু বই নিয়ে,বিবেকানন্দ বুক সেন্টারের উদ্যোগে আজ কলকাতা প্রেস ক্লাবে হয়ে গেল প্রচ্ছদ উন্মোচন ও গ্রন্থ প্রকাশের একটি অনুষ্ঠান।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের প্রখ্যাত কথা সাহিত্যিক মাসুদ আলম বাবুলের উপন্যাস ‘নিদিরা’ ও ‘লেচু মিঞার ঘর,’ প্রতিশ্রুত লেখক দেবানী লাহা মল্লিকের ‘শ্রেষ্ঠ ছোট গল্প’, সত্যজিৎ সরকারের ‘সাফল্য পেতে ছাত্রছাত্রীরা কি নিয়ে পড়বে’ ও কিরীটি মাহাতোর ‘ঝুমুর ও চর্যাপদ’ মিলিয়ে মোট পাচঁটি বই আজ প্রকাশ করা হয়।

আজকের এই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ড.পবিত্র সরকার, ড.মিরাতুন নাহার, প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন আব্দুল কাইউম।

শ্রেষ্ঠা সন্মান


শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,20সেপ্টেম্বর, বৈশালী দে, কলকাতা: বাংলা ভাষার একমাত্র পূর্নাঙ্গ ফুড ম্যাগাজিন “পেটুক মশাই”-এর পক্ষ থেকে আজ প্রেস ক্লাবে অনুষ্ঠিত হল শ্রেষ্ঠা সম্মানের অনুষ্ঠান।

আজকের এই অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট অতিথি হিসেবে উপস্হিত ছিলেন ‘শেফ’ শর্মিষ্ঠা দে এবং ‘কিচেন কুইন অব বেঙ্গল’ শুক্লা মুখোপাধ্যায়। তাদের আজ ‘শ্রীমতি অন্যন্যা’ ও ‘শ্রীমতি শ্রেষ্ঠা’ সম্মানে ভূষিত করা হয়। এছাড়াও প্রায় ৬৪ জন উদ্যোগপতির হাতে পুরুস্কার তুলে দেওয়া হয় “পেটুক মশাই”য়ের তরফে। এছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্হিত ছিলেন বাংলা ব্যান্ড ‘ব্যাড ট্রিপ’।

বর্তমানে মহিলা সমাজকে নিজের আইডেন্টিটি দিতে পেটুক মশাই বহু পদক্ষেপ নিচ্ছে বলে জানান এই ম্যাগাজিনের প্রতিষ্ঠাতা দেবাঞ্জন কর।এছাড়া ‘পেটুক মশাই” আগামী দিনে আরো অনেক চমক নিয়ে আসতে চলেছে বলে জানান ম্যাগাজিনের যুগ্ম পার্টনার “সম্পূর্ণ শিক্ষা-ই-লার্নিং সলিউশন”-এর কর্ণধার শ্রী অরিন্দম ভৌমিক।

শহর মাতলো রফি এবং কিশোরে

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক ,14সেপ্টেম্বর,কলকাতা: “আমরা গানের ফেরিওয়ালা”, সংগীত জগতে এখন এটি একটি অতি পরিচিত নাম। কখনো আর .ডি. বর্মন বা কখনো মহম্মদ রফি, কখনো কিশোর কুমারের স্মরণে। আবার কখনো আশা ভোঁসলেকে সম্মান জানিয়ে একের পরে এক গানের অনুষ্ঠান করে চলেছে। “আমরা গানের ফেরিওয়ালা” বললেই প্রথমে একটা প্রশান্ত মুখ ভেসে ওঠে, সেটি শুভলক্ষ্মীর। হ্যাঁ, সংগীতশিল্পী শুভলক্ষ্মী দের কথাই বলছি।
“আমরা গানের ফেরিওয়ালা”র এবারের সংযোজন দুই অমর শিল্পী মহম্মদ রফি এবং কিশোর কুমারের স্মরণে এক অনবদ্য সঙ্গীত অনুষ্ঠান।

কলকাতার বিজয়গড় কলেজ এর বিপরীতে নিরঞ্জন সদনে শীততাপ নিয়ন্ত্রিত হলে আজ গানে গানে মুখর হয়ে উঠেছিল। একে একে শিল্পীরা পরিবেশন করলেন মহম্মদ রফি এবং কিশোর কুমারের গাওয়া গানগুলো । ব্র্যান্ড ছিল ক্লাসিক অর্কেস্ট্রা । আজকের সংগীত শিল্পীদের মধ্যে ছিলেন তানিয়া ধর, সন্দীপ শংকর বন্দোপাধ্যায়, পিউ মন্ডল, বিশ্বজিৎ কুন্ডু, প্রদীপ্ত সাবুই, প্রতাপ নারায়ন ভট্টাচার্য্য, বাদল হালদার, কুমার জিৎ, পারমিতা রায়, রবি দে, অজন্তা সরকার, সুপ্রিয়া পাল, সৈকত চক্রবর্তী, তাপস দাসগুপ্ত, সোম সোনু শান্তনু রায় এবং অবশ্যই আমাদের চেনা মুখ শুভলক্ষী দে।
গানের অনুষ্ঠানের মাঝে মাঝেই সংগীত জগতের বিভিন্ন গুণী মানুষকে সম্বর্ধিত করলেন অর্গানাইজারা শুভলক্ষী তার বক্তব্যে ধন্যবাদ জানাতে ভোলেননি সঞ্জয় মন্ডল, প্রতিম রায় চৌধুরি, সুনীল ঘোষ, বলাকা মাঠ সার্বজনীন দুর্গোৎসব (উত্তরপাড়া, হুগলি )কে । তবে যেভাবে অনুরাধা ফিরে এসো-১ এবং অনুরাধা ফিরে এসো- ২ মঞ্চ সফল হয়েছিল, দর্শকদের হৃদয় স্পর্শ করেছিল, আজ মহম্মদ রফি এবং কিশোর কুমারের গানগুলো আমাদের মস্তিষ্ক কোষকে আবার নতুন করে নাড়া দিয়ে গেল। মনে করিয়ে দিল সেই সোনা ঝরা দিন গুলো।
তাই লেখা শেষ করার আগে শুভলক্ষীকে আরো একবার ধন্যবাদ জানিয়ে বলবো: ” অসাধারণ।”

মুক্তিযুদ্ধ ছিল আসলে জনযুদ্ধ–
হাছান মাহমুদ

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক, ১৪ সেপ্টেম্বর, কলকাতা : আজ কলকাতা প্রেসক্লাবের সভাপতি স্নেহাশিষ সুর সম্পাদিত “বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ, — কলকাতার সাংবাদিকরা ও প্রেস ক্লাব কলকাতা” বইটির ২য় আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের সূচনা সম্প্রসারণ মন্ত্রী হাছান মাহমুদ, কলকাতার বাংলাদেশ উপ-রাষ্ট্রদূত তৌফিক হাসান, দূতাবাসের ফ্রাষ্ট সেক্রেটারি, মফক্করুল ইকবাল, কিংশুক প্রামাণিক, সেক্রেটারি কলকাতা প্রেস ক্লাব এবং স্নেহাশীষ সুর।

উল্লেখযোগ্য ভাবে আজকের উপস্থিত ছিলেন সেই সময় বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কিত সংবাদ সংগ্রহক সাংবাদিকরা। ছিলেন ড.পার্থ চট্টোপাধ্যায় সুখরঞ্জন দাশগুপ্ত, দিলীপ চক্রবর্তী, মানস ঘোষ, উপেন তরফদার। এই প্রবীণ সাংবাদিকদের বক্তব্য বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের অনেক অজানা ইতিহাস এবং তার বিবরণে সমৃদ্ধ হলেন উপস্থিত শ্রোতাগণ।
হাছান মাহমুদ তার বক্তব্যে বলেন, কলকাতা প্রেস ক্লাব ইতিহাস এবং ইতিহাসের অংশ। আসলে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ছিল জনযুদ্ধ। সেই সময় তার বয়স তখন মাত্র ৮ বছর ছিল। তথাপি কিছু কিছু স্মৃতি তিনি আজও সযত্নে রেখে দিয়েছেন। কৃতজ্ঞ চিত্তে তিনি ভারতের অবদানের কথা। স্বীকার করে বলেন, ওই সময় প্রায় ১ কোটি মানুষকে ভারত আশ্রয় দিয়েছিল। ১৬৬১ জন ভারতীয় সৈন্য মুক্তিযুদ্ধে শহীদ হয়েছেন। তবে তিনি অহংকার করে বলেন যে পাকিস্তান আজ বাংলাদেশের উত্থানে যথেষ্ট বিব্রত। তিনি বলেন, ইমরান খান শাসনভার নিয়ে বলেছিলেন ‘আমি পাকিস্তানকে পাঁচ বছরের মধ্যে সুইডেন বানাবো’। বক্তব্যকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, আগে পাকিস্তান বাংলাদেশের সমকক্ষ হোক, তারপর সুইডেনে কথা ভাবা যাবে। কারণ এই মুহূর্তে বাংলাদেশে শিক্ষিতের হার ৭৫% জিডিপি ৮.৩। আর পাকিস্তানের জিডিপি রয়েছে ৫ এর নিচে। খাদ্য উৎপাদনে বাংলাদেশ স্বনির্ভর হতে পেরেছে। সেই কারণে এবার তারা দু’লক্ষ টন খাদ্য বিদেশে রপ্তানির লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে। এটি শুধুমাত্র সম্ভব হয়েছে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে। তিনি আরো বলেন, স্নেহাশীষ সুরের সম্পাদনায় এই বইটি বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে অন্যতম দলিল হয়ে থাকবে।

মিলনোৎসবে দীঘা

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,13সেপ্টেম্বর,কলকাতা : কলকাতার টিএমপি ফিল্মস হাউস ও এস কে মিশনের যৌথ উদ্যোগে তিন দিনের বার্ষিক অনুষ্ঠিত হয়ে গেল দীঘার একটি পাঁচতারা হোটেলে। সমগ্র অনুষ্ঠানে নেতৃত্বে ছিলেন পরিচালক শুভম দাস।


বর্ণাঢ্য এই অনুষ্ঠান উদযাপনে এক ঝাঁক কলাকুশলীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বেশ কিছু গুণীজন, গুণী ব্যক্তিত্ব । উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট অভিনেতা ধীরু ব্যানার্জি মিউজিক ডিরেকটর অভিজিৎ মন্ডল, বিশিষ্ট চিত্রসাংবাদিক মৃত্যুঞ্জয় রায় এবং অভিনেত্রী-পরিচালিকা শিউলি রামানী। নাম না করলেই নয়, তারা হলেন: পবিত্র, রিনা, স্বপন, রত্না, বিবেক, সন্দীপ, সুপ্রভাত, মোনালিসা, মধুছন্দা, রিয়া, শুভঙ্কর। সমগ্র অনুষ্ঠানটি সবার আন্তরিকতা এবং আন্তরিক অংশগ্রহণে এক পারিবারিক অনুষ্ঠানের রূপ নিয়েছিল। দীঘা সমুদ্র -সৈকত চিত্র সাংবাদিকদের কাছে একান্ত নিজের, চিত্র পরিচালকদের পরিচালনার জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ, লেখক-শিল্পীদের লেখনীর অন্যতম শক্তি,— এভাবেই এক বার্ষিক অনুষ্ঠানে রঙিন হয়ে উঠলো।

এবার টিভিতে রক দ্য ফ্লোর

বৈশালী দে, শুভাবরি ওয়েব ডেস্ক, 2 সেপ্টেম্বর, কলকাতা :
শীঘ্রই প্রতি রবিবার ‘কালার্স বাংলায়’ আসতে চলেছে “রক দ্য ফ্লোর” ডান্স শো। এটি সম্পূর্ণ অন্য স্বাদের একটি ডান্স শো বলে দাবি করলেন পরিচালক বিমল দে।

আজ কলকাতা “JM’s ভিলা স্টুডিও”তে হয়ে গেল এর অডিশন। উপস্হিত ছিলেন অভিনেত্রী সোনালী চৌধুরী, সোমা চক্রবর্তী এবং পরিচালক বিমল দে।

এই শো-র অন্যতম চমক হলো, এই প্রথম বার পরিচালক পরিচালনার পাশাপাশি সঞ্চালনাতেও থাকছেন। বিচারকের ভূমিকায় দেখা যাবে অভিনেত্রী সোনালী চৌধুরী ও মস্কো (রাশিয়া) ২০১৭-র সোনাজয়ী অমর গুপ্তাকে।

লিটিল মিলেনিয়াম স্কুল এবার লেক টাউনে

১ সেপ্টেম্বর, বৈশালী দে, শুভাবরি ওয়েবডেস্ক, কলকাতা :
আজ কলকাতার লেক টাউনে “লিটিল মিলেনিয়াম” স্কুলের নতুন শাখা উদ্বোধন করা হলো। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটি সম্পন্ন করলেন রাজ্যের দমকল মন্ত্রী শ্রী সুজিত বোস। তিনি জানান, প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা প্রতিটি শিশুর বেড়ে ওঠার জন্য খুব জরুরি।

মোট ২০ জন শিশুকে নিয়ে আজ থেকে এই স্কুলটি চালু করা হলো । মূলত: দেড় থেকে ছয় বছরের শিশুদের প্রাথমিক স্কুলে ভর্তি হওয়ার পূর্বে বিভিন্ন পাঠক্রম ও সহপাঠক্রমের বিষয়গুলো এখানে শেখানো হবে।

স্কুলে শিশুদের কি কি প্রাক-প্রাথমিক বিষয়গুলো সহ শিশুদের দেখাশোনা করার কেমন সুযোগ সুবিধা ও ব্যবস্থা আছে তা জানান স্কুলের পরিচালক শ্রীমতি কঙ্কনা চ্যাটার্জী মহাপাত্র ও সায়ন্তী পালিত।

উল্লেখ্য, দেশে মোট ৭৫০-এর ও বেশি লিটিল মিলেনিয়াম-এর শাখা রয়েছে ,যার মধ্যে ৪১ টি রয়েছে কলকাতাতে।

উমা আসছে

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,22আগস্ট,কলকাতা: অমরেশ রায়, আর এইচ কোম্পানি, MD, Nagets Group , সুজন বেরা, মেদিনীপুর কুইজ সেন্টার, অভিনেতা গুড্ডু, ডক্টর মৌসুম মজুমদার প্রমুখের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত হলো “উমা আসছে” তার সাংবাদিক সম্মেলন । আয়োজনে ছিল নিউজ বেঙ্গল এবং VOX 24×7। অসাধারণ একটি চিন্তাভাবনা থেকে এই অনুষ্ঠানে সূত্রপাত। উপস্থিত মান্যবর বক্তাদের মুখে শোনা গেল যার স্তুতি। VOX 24×7 কর্ণধার রাহুল ও তার বিশ্লেষণ করলেন। নিউজ বেঙ্গল এর সোমনাথ সাহা দীর্ঘদিন ধরে সমাজসেবা এবং সংবাদমাধ্যম একসাথে করে যাচ্ছেন এই অনুষ্ঠান তার অন্যতম।
সমাজে উমারা ছিল, আছে এবং থাকবে। প্রচারের আলোতে না আসা নারীদের সম্মান জানাতে আগামী ৩০ তারিখ ভারতীয় ভাষা পরিষদে সন্ধে ছটায় অনুষ্ঠিত হবে এক অনন্য অনুষ্ঠান। নীল মালাকার এবং প্রসুন মুখার্জীর বিশেষ সহযোগীতায় হৃদয় স্পর্শী এই অনুষ্ঠানে থাকবে না চাকচিক্য, থাকবে আন্তরিকতা। কারন বিষয়টি যে ” উমাকে” কেন্দ্র করে।

রফি পুত্র কলকাতায়

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,14আগস্ট,কলকাতা: “এ দুনিয়াকে রাখওয়ালে” এই গানটির অমর শিল্পী মোহাম্মদ রফি সাহেবের পুত্র সাহিদ রফি আজ কলকাতা প্রেসক্লাবে একান্ত ভাবে বাবার স্মৃতি চারণ করলেন। সাহিদ সাহেব বলেন, মোহাম্মদ রফি সবসময় বলতেন, কলকাতা শহর হচ্ছে সংস্কৃতির শহর, গান বোদ্ধাদের শহর, গানকে ভালোবাসার শহর। স্মৃতিচারণায় স্থান পেয়েছিল রফি সাহেবের বিদেশ ভ্রমণের কথা। যেখানে একসাথে তিনি কানাডা আমেরিকা এবং ইউরোপে গান শোনাতে গিয়েছিলে। কথা প্রসঙ্গে অমর শিল্পীর সুপুত্র জানালে “দুনিয়াকে রাখওয়ালে” গানটি তিনি সব অনুষ্ঠানেই গাইতেন। তবে নিজে তিনি নির্দিষ্টভাবে কোনদিনও বলেননি এই গানটি তার প্রিয়। তিনি একান্তভাবেই পরিবারের সাথে থাকতে পছন্দ করতেন। যখন তার অনুষ্ঠান বা কোন রেকর্ডিং না থাকতো, পরিবারের সঙ্গে কাটাতে, ক্যারাম খেলতে পছন্দ করতেন, ঘুড়ি উড়াতে পছন্দ করতেন। তবে তিনি কখনো চাননি তাঁর কোন সন্তান সন্ততি এই পেশায় আসুক। যদি কেউ তার গানের প্রশংসা করতেন, তিনি হাত তুলে ওপর দিকে দেখিয়ে দিতেন। অর্থাৎ যা কিছু করেছেন সেই পরম পিতা করেছেন। নিজেকে তিনি প্রচারের আলোয় আনেনি। কিন্তু একটা সময় রফি সাহেব হয়ে যান সারা ভারতের, সারা পৃথিবীর সংগীত জগতের মুকুটমণি। সাহিদ সাহেব নিজেও প্রথমবার কলকাতায় এসে নাগরিকদের অভ্যর্থনা, আতিথেয়তা এবং রফি প্রেমে আপ্লুত।

আগামীকাল অর্থাৎ ১৫ ই আগস্ট কলকাতার মহাজাতি সদনের বিকেল পাঁচটায় একটি বেসরকারি সংগঠন থেকে দিলীপ কুমার আওয়ার্ড দেওয়া হচ্ছে। সেখানে এই মহাতারকার সুপুত্র উপস্থিত থাকবেন বলে জানালেন অন্যতম সংগঠক এবং বিখ্যাত ক্যারাটে প্রশিক্ষক এম এ আলি। আজকের অনুষ্ঠানের সংযোজনাতেও আলি সাহেব বারবার বারবার বলছিলেন কলকাতার সাথে রফি সাহেবের আত্মিক যোগাযোগের কথা। প্রসঙ্গত তিনি জানালেন স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে কলকাতা প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে রফি পুত্রকে সম্মানিত করা হবে।

মৈত্রীর বন্ধনে সিডি

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,13আগস্ট,কলকাতা: আজ কলকাতা প্রেসক্লাবে ‘দাঁড়িয়ে আছ তুমি আমার’- এই ভিডিও অ্যালবামটির আত্মপ্রকাশ ঘটল। ভারত বাংলাদেশ মৈত্রী সম্পর্কের এক অন্যতম নিদর্শন হয়ে থাকতে চলেছে এই ভিডিও সিডি। কারণ এপার বাংলার স্বনামধন্যা শিল্পী হৈমন্তী শুক্লা এবং ওপার বাংলার জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত শিল্পী ডা অরূপ রতন চৌধুরীর দ্বৈত কন্ঠে রবীন্দ্রনাথের পাঁচটি গান নিয়ে এই ভিডিও সিডি । ‘সাউন্ড টেক’ নিবেদিত রবীন্দ্র সংগীত অ্যালবামে ভাষ্য দিয়েছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। সম্পাদনা উপদেষ্টা ছিলেন আমাজান হোসেন। উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পশ্চিমবঙ্গ সরকারের মন্ত্রী রাজীব ব্যানার্জি, কলকাতা পুরসভার মেয়র পরিষদ দেবাশীষ কুমার এবং সঙ্গে দুই শিল্পী । যদিও দুমাস আগে বাংলাদেশের এক অনুষ্ঠানে এই ভিডিও সিডি উদ্বোধন হয়। যেহেতু ভারত-বাংলাদেশের শিল্পী একসঙ্গে গান গেয়েছেন, সেহেতু ভারতেও এটি প্রকাশ হলো আজ।

স্বপ্নের রং ” মানব জমিন” এ

শুভাবরি ডিজিটালডেস্ক,9আগস্ট,কলকাতা: ২৫ বছর আগে থেকে পুষে রাখা স্বপ্ন যখন বাস্তবের মাটিতে ডানা মেলে, তখন অবশ্যই সেটি কোন অনবদ্য সৃষ্টি হবে। রাজা চৌধুরী এবং জয়দেব ঘোষ এই দুই বন্ধুর দীর্ঘসময়ের চিন্তন এবং পরবর্তীকালে তাঁর প্রয়াস “মানব জমিন” সিনেমার পূর্ণরূপ পেল। মনোমায়া ফিল্মস্ প্রযোজিত, শ্রীমতি বন্দনা ঘোষ নিবেদিত এই সিনেমার পরিচালক ছিলেন জয়দেব ঘোষ এবং অরূপ বিশ্বাস । কলকাতা প্রেসক্লাবে এক মনোজ্ঞ অনুষ্ঠানে এই সিনেমার গানের সিডি উদ্বোধন করেন প্রবীণ পরিচালক দেব কুমার বসু( কিংবদন্তি পরিচালক দেবকী বসুর ছেলে), ডিরেক্টর গিল্ডের পক্ষে ছিলেন বিমল দে। এদিন বিমল দে খুব অল্প কথায় দেবকী বসুর স্মৃতিচারণ করলেন।
বাস্তবে “মানব জমিন” সিনেমাটি ঠিক যেন এ যুগের জন্যই তৈরি করা হয়েছে । জমিদারি প্রথা, সমাজে জাতপাত-ধর্ম নিয়ে যে হিংসা হানাহানি তারই পরিপ্রেক্ষিতে তৈরি এই সিনেমাটি খুব কম সময়ের মধ্যেই মুক্তি পেতে চলেছে । ভালো লাগার বিষয় হচ্ছে, একেবারে গ্রামীণ পরিবেশে অসাধারণ টেকনোলজি কে কাজে লাগিয়ে অরূপ বিশ্বাস এবং জয়দেব ঘোষ সিনেমার চিত্রগ্রহণ করেছেন। আরো একটি উল্লেখযোগ্য বিষয় হচ্ছে এ সিনেমাতে তারা বিভিন্ন থিয়েটার থেকে কলাকুশলী নিয়েছেন। আশা করি দর্শকরা বহুদিন পর একটি ভালো সিনেমা উপহার পেতে চলেছে।

ব্যতিক্রমী “অর্পণ”

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,3আগষ্ট,কলকাতা: বাংলা সিনেমাতে চলে আসা নির্ভেজাল প্রেম কাহিনীর বাইরে অন্য স্বাদের একটি সিনেমা বাজারে আসতে চলেছে। যার চিত্রনাট্য এবং পরিচালনা উমাশংকর প্রতিত। চরিত্র রূপায়নে রয়েছে বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী, অর্পণ, মৌমিতা, অপর্ণা, ইন্দ্রনীল প্রমূখ। কণ্ঠশিল্পী ইন্দ্রনীল চৌধুরী ও শ্রীপর্ণা নাথ এবং সংগীত পরিচালনা সমীর খাসনবিশ।
মা ও মেয়ের একটি প্রেমের কাহিনী সঙ্গে যুক্ত হয়ে পড়ে। সূত্রপাত পেইং গেস্ট অর্পণকে নিয়ে মূলত এটি একটি ত্রিকোণ প্রেমের ঘটনা। সাধারণত যে ধরনের ঘটনা আমরা দেখতে অভ্যস্ত নই। একেবারে নতুন অভিনেতা অভিনেত্রীদের দিয়ে এই সিনেমাটিটি তৈরি করা হয়েছে। প্রযোজক শর্মিষ্ঠা বোস জানালেন, নবাগত শিল্পীদের সুযোগ করে দেওয়া আমাদের মূল উদ্দেশ্য।

https://youtu.be/2GERAf3Def0

পঞ্চ কবির গানে

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,2আগস্ট,কলকাতা: আজ বরেন্য পাচ জন কবির স্বরলিপি সহ গানের বই প্রকাশ হল প্রেস ক্লাবে। গবেষক ড. শিপ্রা সেনের লেখা “পঞ্চ কবির গানে সমাজ ভাবনা ও দেশাত্মবোধ ” বইটি উদ্বোধন করলেন বাংলাদেশের নজরুল একাভেমির কার্যনির্বাহী সভাপতি সৈয়দ মহ: আজিজ এবং মহ: রেজ্জাক।

সময়ের দাবি মেনেই যেন গবেষক মহোদয়ার এই বই প্রকাশ। অতুল প্রসাদ- রবীন্দ্রনাথ -নজরুল ইসলামের গান ও কবিতা সময়ে সাথে তাল মিলিয়েই যেন লেখা হয়েছিল। আজন্ম সংগীত মহলে বেড়ে ওঠা শিপ্রা সেন এক অসাধারন কাজ করলেন। এ টি কানন, শ্রীমতি যুথিকা রায়, ওস্তাদ সাবির খা প্রমুখের সংস্পর্শে এবং তাদের দিশা লাভে ধন্য হয়েছেন। আজ বিচ্ছিন্ন দুই ভাই-দুই দেশের সেতু বন্ধনে নিজস্ব প্রচেষ্ঠার স্বাক্ষর রেখে দিলেন এই বই প্রকাশের মাধ্যমে।
আগামী দিনে বামা পুস্তালয়ের প্রকাশনায় ৩৭৫ টাকা মুল্যের এই বই নব প্রজন্মের কাছে নিশ্চয়ই এক সম্পদ হিসেবে গৃহিত হবে।

“বারুদে ফুলের গন্ধ”

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,2আগস্ট,কলকাতা: 16 ই আগস্ট, স্বাধীনতা দিবসে ঠিক একদিন পরেই বারুদে পাওয়া যাবে ফুলের গন্ধ। না, এটা কোন উগ্রবাদী আন্দোলন নয়, কোন গোলাগুলি নয়। সিনেমার পর্দাতে একটি দুষ্টু মিষ্টি গল্প ” বারুদে ফুলের গন্ধ”।

সমীর রায় একজন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি। তার দুই মেয়ে রিয়া, স্মৃতি এবং স্ত্রীকে নিয়ে সুখের সংসার । অরুণ সেন একজন ব্যবসায়ী তার একমাত্র ছেলে রাজ। রাজ ও রিয়া এক কলেজ লেখাপড়া করে। ওরা একে অপরকে ভালবাসে। অন্যদিকে অনাথ সানি ভালো ছবি আকে।রিয়াকে অন্ধের মত ভালোবাসে। কিন্তু  রিয়া ওকে ঘৃনা করে। কারন, আদালতের বিচারে সানি একজন খুনি। পরবর্তীকালে এই সানি রিয়ার প্রান বাচায়। আগামী দিনে রিয়া কাকে বিয়ে করবে, সানির খুনি অপবাদ কি ঘুচবে, –


এই নিয়ে নরসিংহ প্রোডাকশনের সিনেমা ” বারুদে ফুলের গন্ধ”। চিত্রনাট্য ও পরিচালনা : নাড়ুগোপাল মন্ডল, চিত্রগ্রহন: বৈদ্যনাথ বসাক, অভিনয়ে: বোধিসত্ব মজুমদার, অনুরাধা রায়, কল্যানী মন্ডল, দেবরাজ রায় প্রমুখ।

“বাতায়ন” মুক্ত হল

শুভরাত্রি ওয়েবডেস্ক, ৩১জুলাই, কলকাতা: ‘মুক্ত করো অন্ধকারের এই দ্বার’, বাতায়ন সাহিত্য পত্রিকার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কলকাতা প্রেস ক্লাবে এমন একটি সত্যই উঠে এল। ইংরেজি এবং বাংলা ভাষার অনলাইন এই পত্রিকাটির উদ্বোধনে অস্ট্রেলিয়ার কলকাতা স্থিত রাষ্ট্রদূত অ্যান্ড্রু ফোর্ড উপস্থিত ছিলেন। ছিলেন বুক সেলার্স এন্ড পাবলিসার্স গিল্ড, কলকাতার সভাপতি ত্রিদিব চট্টোপাধ্যায়, ছিলেন এ বাতায়ন পত্রিকার প্রাণ অর্থাৎ যার হাতে এই পত্রিকাটি প্রতিষ্ঠা পেয়েছিল ডক্টর অনুশ্রী ব্যানার্জি।


প্রারম্ভিক বক্তব্য জানা গেল যে ২০১৫ থেকে এই পত্রিকাটি যাত্রা শুরু করে। অনুশ্রী জানালেন, এই পত্রিকায় বাংলা এবং ইংরেজি ভাষায় সাহিত্য এবং সংবাদ সব কিছুই থাকছে। তিনি আনন্দের সঙ্গে ঘোষণা করলেন, এই পত্রিকার সাথে শুরু থেকেই রয়েছেন নবকুমার বসু তাঁর দীর্ঘ একটি লেখা দিয়ে। রাষ্ট্রদূত অ্যান্ড্রু ফোর্ড তার স্বগত: বক্তব্যে বলেন, কলকাতার সাথে তারা যোগসুত্র স্থাপন করতে চান, মানুষের সাথে মানুষের যোগাযোগ স্থাপন করতে চান। তাই তিনি এই পত্রিকার উদ্ববোধন অনুষ্ঠানে আসতে পেরে যথেষ্ট আনন্দিত। বুক সেলার্স এন্ড পাবলিসার্স গিল্ড, কলকাতার সভাপতি ত্রিদিব চট্টোপাধ্যায়, বলেন ২০১৩-১৪ সালে অনুশ্রী এই পত্রিকাটি বিষয় নিয়ে দীর্ঘ আলোচনা করেন তার সাথে। তিনি ঘোষণা করেন, এবছরের কলকাতা পুস্তকমেলায় অস্ট্রেলিয়ার স্টলের সাথে বাতায়ন পত্রিকারও একটি অংশ থাকবে। জানা গেল যে প্রায় পাঁচ হাজারের উপর মানুষ প্রতিবছর অস্ট্রেলিয়া ঘুরতে যাচ্ছে। অর্থাৎ অস্ট্রেলিয়ার সাথে এদেশের পথ চলা শুরু হয়েছে। তবে নিঃসন্দেহে বাতায়নের এই প্রচেষ্টা অর্থাৎ অনলাইনে একেবারে বিনে পয়সায় বাংলা এবং ইংরেজি ভাষার সমস্ত মানুষের এই বই পড়ার আনন্দ উপভোগ করতে পারবেন।
শুভাবরি মহিলাদের একটি নিজস্ব পত্রিকা। সেই কারণে একজন নারীর প্রচেষ্ঠায় বিশ্বব্যাপী এই উদ্যোগকে আন্তরিক স্বাগত জানায় সম্পাদক মন্ডলী।

তোমার ছোঁয়া



শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,19জুলাই,কলকাতা: ত্রিকোণ প্রেম, বন্ধুকে বাঁচাতে মৃত্যুবরণের মত জমজমাট গল্প নিয়ে আজ কলকাতা প্রেস ক্লাব সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে নীলাঞ্জন ভারতী ফিল্ম তাদের দ্বিতীয় ছবির পোস্টার ও প্রোমো উদ্বোধন করলো । ছবির নাম “তোমার ছোঁয়া” । ২ ঘন্টা ২২ মিনিটের এই ছবিতে অভিনয় করেছেন বিশ্বজিত চক্রবর্তী, অরুণ ব্যানার্জি, অভিরাজ, মোনালিসা প্রমুখ। গান গেয়েছেন কুমার শানু, নবমিতা দাস প্রমুখ। কাহিনী-চিত্রনাট্য-পরিচালনা ও প্রযোজনা করেছেন কৃষ্ণেন্দু দেবনাথ । শুভমুক্তি ৩০ শে আগষ্ট । ছবিটির সাফল্য নিয়ে আশাবাদী পরিচালক, আশাবাদী কলাকুশলীরাও। এবার হলমুখী দর্শকদের ছোয়া পেলেই কেল্লা ফতে।
প্রচারে ছিলেন শুভঙ্কর।

উত্তমময় ২৪ জুলাই

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,18জুলাই,কলকাতা: মৃত্যুর ৩৯ বছর পর ও তিনি বাঙালি মননে অমলিন। আজও রোমান্টিক চলচ্চিত্র নির্মানে তার কথা মনে পড়ে নির্মাতাদের। সেই অবিনশ্বর মহানায়কের মৃত্যু  দিবসে তারই নামাঙ্কিত উত্তম মঞ্চে ২৪ জুলাই স্মৃতি তর্পণ। আজ এক সাংবাদিক সন্মেলনে গায়ক সৈকত মিত্র, অভিনেতা গৌরব চট্টোপাধ্যায়, নৃত্য শিল্পী কহিনুর সেন বরাট, তবলা বাদক মল্লার ঘোষ, প্রয়াত অভিনেত্রী সুপ্রিয়া দেবীর কন্যা সোমা মুখার্জী প্রমুখ প্রাক-মৃত্যুদিবস স্মৃতি চারন করলেন কলকাতা প্রেস ক্লাবে। মহানায়কের সিনেমার চিত্রশিল্পী পদ্মশ্রী নিমাই ঘোষের তোলা উত্তম কুমারের ছবির কোলাজও থাকছে সেদিন।

https://youtu.be/WGOadL2jRKc

অসাধারণ দুটি নাটক

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক, 5জুলাই,কলকাতা : ৭ জুলাই কলকাতার জ্ঞান মঞ্চে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে সৌরভ পালোধী পরিচালিত উৎপল দত্ত ও মোহিত চট্টোপাধ্যায়ের নাটক যথাক্রমে ” ঘুম নেই ” ও ” ক্যাপ্টেন হুংরা” (সন্ধ্যে ৬.৩০ ও বিকেল ৩ টে)। ‘ ইচ্ছে মতো ‘ নাট্যগোষ্ঠির এই দুটি নাটকের প্রচারের দায়িত্বে রয়েছে দলের সদস্যরাই। 

একাডেমি চত্তরে তাদের সাথে দেখা হল কাকতালিয় ভাবে। আচমকা ঝকঝকে এক যুবক এসে তাদের নাটক নিয়ে কথা বলতে চাইল। উৎসাহিত হলাম। সত:প্রনোদিত হয়ে ওদের প্রচারের  দায়িত্ব চাইলাম। কারন “শুভাবরি ” শুভকেই বরন করতে চায়।আবার মনের বিশ্বাস দৃঢ় হল, বাংলার নাট্য চর্চার গতি কোনদিনই রুদ্ধ হবে না।   আশাকরা যায় আমাদের এবং ইচ্ছেমতোর’ চেষ্টা ব্যর্থ হবে না।

প্রেস ক্লাবে ‘ রংহীন রামধনু ‘

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,2জুলাই,কলকাতা : মিষ্টিমধুর প্রেম আর প্রাক-প্রেম সংঘাতকে চিত্রনাট্যের( হরিদাস দাস) বাধনে বেধে পরিচালক উমাশঙ্কর পতিত তৈরি করলেন পূর্নদৈর্ঘ্যের সিনেমা ‘ রংহীন রামধনু ‘। আজ কলকাতা প্রেস ক্লাবে সংগীত পরিচালক বব চক্রবর্তী ও কলাকুশলীদের বক্তব্যে জানা গেল কাহিনীর সার সংক্ষেপ।

ধনী ব্যবসায়ী সূর্যকান্তের ছেলে রোহানের সাথে প্রভাবশালী মন্ত্রী জাফর শেঠের মেয়ে সুমির প্রেমকে কেন্দ্র করে ছবির শুরু থেকেই রয়েছে টানটান উত্তেজনা। ওরা সমাজের এক্তিয়ারের বাইরে চলে যাবার চেষ্টা করলেও ধরা পড়ে যায় রোহান এবং ওকে খুন করা হয়। এ ঘটনা সুমি দেখে মানসিক রোগী হয়ে যায় ও তার স্থান হয় মানসিক হাসপাতালে। এভাবেই ঘাত-প্রতিঘাতে এগিয়ে যায় ‘ রংহীন রামধনু ‘। ক্রিয়েশন ইমেজ নিবেদিত এই সিনেমা টির শুভমুক্তি ১৯ জুলাই।

অভিনয়ে: নীলু ভৌমিক, বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী, ভরত কল, সাগ্নিক চ্যাটার্জী, বৃষ্টি আলম। প্রযোজনা- অভিজিৎ রায়, চিত্রগ্রহন-মিন্টু কুমার সিংহ, সম্পাদনা-সুদীপ্ত। নেপথ্য শিল্পী – উত্তম মান্না, রিতা, সিদ্ধার্থ, শ্রাবনী, বব।
জনসংযোগ : শুভঙ্কর।

ইন্দিরাতে ” ক্যাটস আই”

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,28জুন,কলকাতা: চিত্রনাট্যকার-প্রযোজক-পরিচালক: শুভাশীষ নন্দী( বিজু)র সিনেমা ক্যাটস আই আজ কলকাতার ইন্দিরা সিনেমা হলে মুক্তি পেল। একটি পারিবারিক ঘটনাকে কেন্দ্র করে কিভাবে একটি সুন্দর সিনেমা তৈরি করে বাংলা ছবির দর্শকদের হলমুখী করা যায় শুভাশীষ তা দেখিয়ে দিলেন। অন্য প্রযোজক ও পরিচালকরা যখন স্টার ভিত্তিক সিনেমা বানাচ্ছেন, ইনি তখন প্রবীণ নবীনদের নিয়ে অসামান্য এই কাজটি সম্পন্ন করলেন।

ছবিতে পরিচালকের অভিনয় তারিফ করার মতো। বিশেষ করে নায়ক ও খলনায়কের চরিত্রের স্বাতন্ত্র বজায় রাখতে বিশেষ সফল। মনে রাখার মতো অভিনয় করেছেন রিমা বাসু। গ্রাফিক্সের কাজ এবং স্থান নির্বাচন প্রশংসনীয়। তবে চিত্রনাট্য আরো মজবুত হবার প্রয়োজন ছিল।

শোনা যাক, ছবি সন্মন্ধে পরিচালক এবং হল ফেরৎ দর্শক কি বলছেন:

https://youtu.be/yIH7QfwlFek

মানবাধিকারের আরোও একটি বই 

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,২৬জুন ,কলকাতা : 

গার্হস্থ্য হিংসা তো সেই স্বাধীনতার আগে থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত চলছে। এখনো আকড়ে আছে এই হিংসা। এই হিংসার বিভিন্ন নমুনা আমরা শুনতে পাই সংবাদপত্র সহ মানুষের মুখে মুখে। 

গার্হস্থ্য হিংসা এবং তার বিভিন্ন দিক নিয়ে আজ কলকাতা প্রেস ক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে একটি বই প্রকাশ হয় । Human Rights Law And Domestic Violence নামক বইটির লেখক হলেন কলকাতা হাই কোর্টের আইনজীবী ড: বরুণ কুমার দাস।

২৫৬ পৃষ্ঠার এই বইটিতে আছে কিভাবে একজন মহিলাকে গার্হস্থ্য হিংসা থেকে বাচানো যায়, কিভাবে ভারতের বাইরে হিংসা থেকে মহিলাদের বাচানো হয়, ভারত তথা পশ্চিমবঙ্গে কিভাবে বিভিন্ন আইনের মাধ্যমে মহিলাদের হিংসা থেকে বাচানো যাবে। এই বইটি শুধুমাত্র আইনের ছাত্র, বা আইনজীবীদের জন্য নয়, সাধারণ মানুষ এমনকি আইনের গবেষকদেরও এটি অত্যন্ত প্রয়োজনীয় , একথা বার বার উঠে আসে এই বইটির সমালোচনায় । বইটির প্রকাশনায় সেন্ট্রাল ল পাবলিকেশন ।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন বিচারক চিত্ততোষ মুখার্জি, বরিষ্ঠ আইনজীবী অজয় কুমার নন্দী, অশোক কুমার চক্রবর্তী, কলকাতা পুলিসের আইন ইনস্টিটিউটের শিক্ষক সৌরভ দে সহ বহু গুণিজন।

শচীন দেববর্মনের ত্রিপুরা



শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,23জুন,কলকাতা: শচীনদেব বর্মন এর কণ্ঠে গাওয়া “শোনোগো দক্ষিনা হাওয়া ” এই অমর গানকে অবলম্বন করে কলকাতার আশুতোষ মেমোরিয়াল হলে এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। আয়োজনে ছিল শচীন দেববর্মণ মিউজিকাল আকাদেমি । নেপথ্যে কবি, সাহিত্যিক,গীতিকার সুরকার দেবাশিষ রায়।
মঙ্গলপ্রদীপ জ্বেলে অনুষ্ঠানের সূচনা হল। সঙ্গে ছিল দেবাশীষ রায়ের লেখা “শচীন দেববর্মনের ত্রিপুরা” নামক বই প্রকাশ। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সাহিত্যিক পৃথ্বিরাজ সেন, জয়দেব সেন, শিউলি রমণী সহ বহু বিশিষ্ট গুনিজনেরা। এই নিয়ে মোট নয়টি বই প্রকাশ হলো দেবাশিস বাবুর। প্রকাশক প্রিয় শিল্প প্রকাশন ।

ওরা আমাদেরই একজন 

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,18জুন,কলকাতা: 

আজ শিশির মঞ্চে ঢোকার আগে প্রকৃতি ওপর থেকে জামা কাপড় ভিজিয়ে দিয়েছিল । আর শিশির মঞ্চের ভেতরে গিয়ে মনটা ভিজিয়ে দিল ছোট ছোট শিশুদের, বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের নিয়ে অনুষ্ঠানটি দেখে ।

 

অনুষ্ঠানের বিভিন্ন গান নাচ এবং তাদের বাচন ভঙ্গি অসাধারণ । গান হচ্ছিল ‘আগুনের পরশ মনি ছোয়াও প্রাণে’। এই বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের এই অনুষ্ঠান আমাদের মধ্যেও কিন্তু এই পরশমণি ছুঁইয়ে গেলো। এই অনুষ্ঠানের আয়োজক “তুলির টানে” আর “তুলির টানের”  সর্বময়ী কত্রী নুপুর মুখার্জি। এটি তাদের বাৎসরিক উৎসব । এই সংস্থা দীর্ঘদিন ধরে এই বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের নিয়ে অনুষ্ঠান করে আসছেন । সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে সেমি-ক্লাসিকাল এবং সাধারণ যে রবীন্দ্রসঙ্গীত তার সাথে যে নাচ তারা নাচলেন ভাবতে সত্যিই অবাক লাগে আমরা এদের সাথে খুব সুন্দর ব্যবহার করে কেনো চলতে পারি, কিন্তু   আন্তরিক ভাবে কিছুই করি না।  মানতেই চাইনা, ওরা আমাদেরই মতো, ওরা আমাদেরই একজন । 

তবে পারি না বললে হবে না। পেরেছে নুপুর  মুখার্জি, পেরেছেন তার সঙ্গী সাথিরা । মঞ্চে সঙ্গী সাথীদের ডেকে তিনি সম্বর্ধনা দিলেন। অনুষ্ঠানে   ছিল সমবেত নৃত্য “বরিশ ধারা মাঝে শান্তিরও বারি” । শান্তি যেন আমাদের ক্ষোভ আবেগকে মিশিয়ে দেয়। 2010 সালে নুপুর মুখার্জি এই সব বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের বাবা-মাদেরও ওয়ার্কশপের আয়োজন শুরু  করেছিলেন যাতে সুন্দরভাবে এই ‘দেবশিশুদের’ মানুষ করা যায়। নুপুর মুখার্জী আজ তার বক্তব্যে স্বীকার করে নেন যে পি ডব্লু ডি-র কমিশনার দেবব্রত চ্যাটার্জি মহাশয়ের অশেষ সহযোগীতা পেয়ে তিনি এতটা দুরে আসতে পেরেছেন । 

‘ মুসকান’ এর সহযোগীতায় সমগ্র অনুষ্ঠান পরিচালনা ও পরিকল্পনা : নুপুর মুখার্জী, সঞ্চালনায় – শ্রীপর্না আঢ্য, মিডিয়া যোগাযোগ – মৃত্যুঞ্জয় রায়।  আসুন, আমরাও নুপুর মুখার্জিকে দেখে, ‘তুলির টানকে, দেখে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের নিয়ে নতুন করে ভাবি, কারণ ওরা আমাদেরই একজন।

মিনার্ভায় চক্ষুদান

ছবি আকাশ দাশ

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,29মে, কলকাতা: মিনার্ভা থিয়েটারে 28 মে হয়ে গেল নাটক ” চক্ষু দান”। চিরন্তন থিয়েটারের এই নাটক দেখতে ছিল উপচে পড়া ভিড়। নাট্যকার: গৌতম রায়, নির্দেশনা: সূজন চক্রবর্তী ও প্রিয়া চ্যাটার্জী। অভিনয়ে: রাজিব ব্যনার্জী, প্রিয়া চ্যাটার্জী, রাজা দে, শ্রীমন্ত চক্রবর্তী প্রমুখ। উল্লেখযোগ্য, নাটক শুরুর আগে জাতীয় সংগীত পরিবেশন দর্শকদের হৃদয় ছুয়ে যায়।

২৪ মের সাক্ষী



শুভাবরি ওয়েবডেস্ক, ১৬মে , কলকাতা: বাঁধা গতে চলে আসা সিনেমা থেকে একটু হাটকে তৈরি হওয়া একটি সিনেমা সাক্ষী। গরীব গ্রামের মেয়ের কথা । দেবশংকর হালদার যিনি এই ছবির অন্যতম অভিনেতা তিনি বললেন , শহরের মধ্যকার একটি মর্মস্পর্শি ছবি এটি। দয়াল প্রডাকশনের এই ছবিতে তিনি একটি ব্যতিক্রমী চরিত্রে অভিনয় করেছেন বলে জানান এই অভিনেতা। সিনেমাটিতে দক্ষ এবং প্রবীন অভিনেতা শান্তিলাল মুখার্জি ও ব্যস্ত রাজনীতিবিদ লকেট চট্টপাধ্যায়ও অভিনয় করেছেন। প্রতিশ্রুতিবান অভিনেতা অর্জুন চক্রবর্তীকে দর্শক নতুনভাবে দেখবেন ২৪শে মে।

পরিচালক শৌভিক সরকারের এটি ৩য় পুর্ণদৈঘ্যের সিনেমা। এদিন প্রেস ক্লাবে উপস্থিত ছিলেন প্রযোজক রিক্তা মুখার্জি । অভিনয় করেছেন সায়নি ঘোষ, অনিন্দ্য ব্যানার্জি প্রমুখ । সব শুনে মনে হচ্ছে সপ্তদশ লোকসভার ফল ঘোষণার পরদিন একটা মন ভালো করা সিনেমা দর্শক দেখতে পাবে।

সংস্কৃতিতে জেনেক্স

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক, 9মে, কলকাতা : সপ্তমবর্ষে পরল জোকার জেনেক্স ভ্যালির শিল্প চর্চা। আগামী 11এবং 12 মে তাদের নিজস্ব কম্পাউন্ডে এক সংস্কৃতি সন্ধ্যার আয়োজন করতে চলেছেন। থাকছেন কৌশিকি চক্রবর্তী, ব্যান্ড দোহার সহ বহু শিল্পী। এছাড়া থাকছেন দেশের বিভিন্ন শিল্পীরাও।
1850টি ফ্ল্যাট বিশিষ্ট 8000জন মানুষ নিয়ে তাদের এই প্রয়াসে ধীরে ধীরে অনেক মানুষ এগিয়ে আসছে।
কর্মকর্তাদের কথায় তারা ক্লাসিকাল গানকে মানুষের মধ্যে জনপ্রিয় করে তুলতে চান । শুধুমাত্র গান নয় ক্লাসিকাল নাচ,ফোক মিউজিক ,এবং আমাদের সংস্কৃতির সবকিছু জনপ্রিয় করে তুলতে উদগ্রীব । তারা তাদের এপারমেন্টের মধ্যে থেকে গান ,নাচে পারদর্শীদের সুযোগ করেন দেন সনামধন্য শিল্পীদের সাথে স্টেজ ভাগ করে নিতে। তাদের আশা এই ভাবেই সবাই ধীরে ধীরে ক্লাসিকাল গান ,নাচের প্রতি আকৃষ্ট হবেন। কর্মকর্তাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সুমন্ত মিত্র, প্রদীপ নাগ, অমিতেশ গুপ্ত, সাক্ষ্য সিনহা, সঞ্জয় গুপ্ত, স্বপন দে, রঞ্জিত চন্দ, তরুন সরকার।

রবীন্দ্র চর্চায় সুমন



শুভাবরি ওয়েবডেস্ক, ৯মে , কলকাতা : ২৫শে বৈশাখ । আর সেদিন যদি কথক থাকেন কবীর সুমন তাহলে বুঝতে হবে সত্যিই কবিময় হবে সে অনুষ্ঠান । তিনি বলেন, রাকা ভট্টাচার্য এর সাথে যে অর্কেস্ট্রা বেজেছে সেটি শিখতে অনেক সময় লেগেছিল।
রাকা ভট্টাচার্য এর সিডি উদ্ভোধনে এসে উদার চিত্তে রবীন্দ্রনাথ চর্চা করলেন এই সুরসাধক । এ যেন অন্য সুমন – ভালোলাগাকে ‘নাই রস নাই ‘ গানটি শুনিয়ে । তবে এটি রাকা ভট্টাচার্য এর কণ্ঠে । সার্থক হলো ১৪২৬এর ২৫ শে বৈশাখ । বাইরের দাবদাহে ঝলসানো পৃথিবীতে শীতলতা আনতে গুরুদেব ছাড়া যে আর কেউ নেই, আবারও তা প্রমাণিত। কেলীডোস্কোপ এর তত্ত্বাবধানে গানটি রেকর্ড করা হয়। রাকা ভট্টাচার্য নিজের গানের অনুপ্রেরণা হিসাবে কবীর সুমনের নামটিই উঠে আসে বার বার । গানটি শোনা যাবে সংস্থার ইউটিউব চ্যানেলে।

যজ্ঞসেনি

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক,8মে,কলকাতা : 5 বছর বয়স থেকে চলতে শুরু করেছিল সে। পরবর্তীকালে ভারতনাট্যমকে গভীর থেকে জানতে পারি দিয়েছিলেন সুদূর দক্ষিন ভারতের তামিলনাড়ুতে । মানবাধিকার বিষয়ে মাস্টার্স করে ভারতনাট্যমেও মাস্টার্স করেন। এখন গীতাঞ্জলির ওপর পি এইচ ডি করেছেন অভিনেত্রী সোমা দে র কন্যা যজ্ঞসেনি চ্যাটার্জি। ড. লক্ষী রামস্বামীর যোগ্য ছাত্রী হিসাবে নিজেকে গুরুর প্রতি দ্বায়বদ্ধতা রয়েছে। ঝুলিতে আছে বেশ কিছু পুরস্কারও। কলকাতা যেহেতু মাতৃভূমি, সেখানে একটি ইন্সটিটিউট খুলতে আগ্রহী। এক সাংবাদিক সম্মেলনে যজ্ঞসেনি জানান, কলকাতায় বেশ কিছু ওয়ার্কসপ করতে চান, মানুষকে জানাতে চান তার কাজের ব্যপারে।

মানিক ফকিরের বিতর্কিত উপন্যাস

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক, 8মে, কলকাতা : সিঙ্গুর নন্দীগ্রাম আন্দোলন নিয়ে তিনি লিখেছিলেন কিছু বিতর্কিত উপন্যাস সেই মানিক ফকির (মন্ডল) এন আর সি -র বিরুদ্ধে উপন্যাস প্রকাশ করলেন ‘হিটলারের মাসতুতো ভাই’ । কলকাতা প্রকাশনের দ্বারা প্রকাশিত এই বইটি । এখন দেখ যাক বই জগতে যে সমস্ত বিতর্কিত উপন্যাস গুলি রয়েছে তাতে নিজের জায়গা ওপরের দিকে নিতে সক্ষম হয় কিনা মানিক বাবুর এই সৃষ্টি। দেখা যাক আগামী দিনে পাঠকরা কি বলেন !

স্মৃতির পটে চিন্ময়

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক, 16এপ্রিল ,কলকাতা : তিনি ছিলেন হাসির রাজা, খোলা মনের অভিনেতা , যিনি মৃত্যুর পরও রেখে গেলেন নিজের সৃষ্টিকে। তবে সেটা হাসির রাজা চিন্ময় রায়ের সিনেমা নয়, তাঁর কণ্ঠে গাওয়া রবীন্দ্রসঙ্গীত । সহযোগী শিল্পী মালবিকা মুখার্জি।
এঞ্জেলা ভিডিও র ব্যানারে প্রকাশিত “স্মৃতির পটে চিন্ময় ” অডিও সিডি অনুষ্ঠানে কলকাতা প্রেস ক্লাবে উপস্থিত ছিলেন মালবিকা মুখার্জি, শুভ দাশগুপ্ত, কল্যাণ সেন বরাট, ইন্দ্রাণী সেন, সঞ্জয় চক্রবর্তী, চিন্ময় রায়ের ছেলে শঙ্খ রায় প্রমুখ।
শুধু ছিলেন না প্রাণের চিন্ময় দা, সবার প্রাণের মানুষ টেনিদা।


শুভ দাশগুপ্ত প্রস্তাব দিলেন, এঞ্জেল ভিডিও কে যাতে চিন্ময় রায় অভিনীত সিনেমাগুলোর কোলাজ করা যায়। তার নামও দিলেন তিনি ” সেই সময় চিন্ময় ” । এঞ্জেলার কর্ণধার সুমিত পাল তাতে সন্মতি দিয়ে জানলেন যে খুব শীঘ্রই এই ভিডিও তারা তৈরি করে অনলাইনে দেবেন। হর্ষ ধ্বনিতে উচ্ছাস প্রকাশ করলো হল ভর্তি মানুষ । সবাই অনুভব করলেন চিন্ময় রায় আছেন আমাদের মাঝেই। কারণ অনুষ্ঠান শুরু হয়েছিল যে তার কণ্ঠে কবিগুরুর লেখা গান দিয়ে — ” ও যে মানে না মানা”।
দারুন তথ্য দিলেন চিন্ময় পুত্র শঙ্খ ” আজ 16/4/19 ছিল চিন্ময়-জুই এর বিবাহ বার্ষিকী “।

স্বাগতম সুব্রত


শুভাবরি ওয়েবডেক্স, 12এপ্রিল,কলকাতা:সুন্দর সন্ধ্যা,সুন্দর সভাঘর, সুন্দর লেখনীর উদবোধনে সর্বাঙ্গ সুন্দর করে তুলল । লেখক সুব্রত বন্দোপাধ্যায়ের গল্পগুচ্ছের প্রকাশ করলেন সাহিত্যিক সুকুমার রুজ, কবি বরুণ চক্রবর্তী, তপন বন্দোপাধ্যায় , রমা শিমলাই, অমিত ভট্টাচার্য । ” এক সন্ধ্যায় আমি” বই প্রকাশের পরবর্তী সময়ে অতিথি বর্গের সুবক্তব্যে অসাধারণ সব তথ্য উঠে এলো যা সাহিত্য সম্বন্ধীয় । 16 টি গল্পের সম্ভার নিয়ে সুব্রত বাবুর সম্পর্কে অনেক অজানা তথ্য উঠে এলো । আগামীদিনে বাংলার সাহিত্য জগত যে আরোও একজন গুনী লেখক পেয়ে গেলেন সেটা কলকাতার সংস্কৃতির পীঠস্থানেই নিশ্চিত হলো।

https://youtu.be/uKdjc2BGuEQ

WB04C 9056

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক, ৫ এপ্রিল ,কলকাতা:

কেউ ময়লা ফেলছি, কেউ ময়লা তুলছি।
কেউ উষ্ণায়নের কারণ, কেউ রোধে চেষ্টা করছি। এ নাটক চলছেই সমাজের রঙ্গমঞ্চে।
এর মধ্যেই Taxi চালক ধনঞ্জয় চক্রবর্তীর প্রবেশ মঞ্চে। এ নাটকের অন্য এক অভিনেতা অনির্বান চক্রবর্তী । ধনঞ্জয়বাবু ব্যক্তিগত জীবনে চাকরি হারিয়ে ট্যাক্সি চালক হন। কিন্তু গাছ বাচাতে, পরিবেশ বাঁচাতে, ট্যাক্সির ওপরে এবং ভেতরে গাছ রাখছেন।
এই অনবদ্য প্রচেষ্টাকে উৎসাহ দিতে, সচেতনতা বাড়াতে এগিয়ে এলেন শিক্ষক অনির্বান। তৈরি করলেন তথ্যচিত্র ” The Oasis” (ইংরেজী)। মাত্র ১৯.২৪ মিনিটের পরিবেশ ভিত্তিক তথ্যচিত্র। এটি তাঁর ৩য় প্রকল্প। পরিচালনা ও চিত্রগ্রহণ: অনির্বান চক্রবর্তী , সম্পাদনা: সৈকত ব্যানার্জি, আবহ: ইন্দ্রনীল সিং। এক প্রকৃতিপ্রেমী নিয়ে অন্য এক প্রকৃতিপ্রেমীর অনবদ্য সৃষ্টিই আজ কলকাতা প্রেস ক্লাবে একমাত্র উপস্থাপনা। অবশ্যই, অবশ্যই আশা করা যায় এই অনুপ্রেরণা উষ্ণায়ন রোধে এবং দৃষ্টি নন্দন পরিবেশ সৃষ্টি করতে সাহায্য করবে ।

বাড়াতে কদম

শুভাবরি ওয়েবডেক্স, ২৮ মার্চ , কলকাতাঃ যুব সমাজের ভাঙন দেখে স্বত:স্ফুর্ত ভাবে 20 মিনিটের স্বল্প দৈঘ্যের সিনেমা তৈরি করলেন পরিচালক ও চিত্রনাট্যকার শিব জয়সওয়াল ।
ব্যাক্তিগত ভাবে শিব জয়সওয়াল নাটকের কর্মী। বিভিন্ন নাটকে অভিনয়ও করেছেন । তিনি চলচ্চিত্রে অভিনয় ও হিন্দি অনুবাদক ও। তাই সচেতনতামুলক প্রচারের জন্যে সিনেমাকে সব থেকে প্রয়োজনীয় মাধ্যম হিসেবে বিবেচনা করেছিলেন। যার প্রথম প্রয়াস আজ।

কলকাতা প্রেস ক্লাবে সকল কলাকুশলীদের নিয়ে তিনি তার প্রথম স্বল্প দৈঘ্যের সিনেমার শুভ উদ্বোধন করলেন । তিনি বার বার বললেন, সম্পূর্ণ নতুন কলাকুশলীদের নিয়ে তিনি এই সিনেমা তৈরি করেছেন । সত্যিই অভিনয়ও অসাধারন হয়েছে। যদিও কিছু কারিগরী দিক; যেমন আবহ , শব্দ গ্রহণ, বা ভয়েজওভার কিছুটা ঠিক করে নিলে এটি একটি অসাধারণ সিনেমা হিসাবে গন্য হতে পারে । ছবির মূল বক্তব্য যুব সমাজের নেশা এবং মোবাইল এবং নারী সঙ্গতে আশক্তি। এসব তাদের উত্থানের সময়টিকে যেভাবে নষ্ট করে দিচ্ছে, এই দিকটি তিনি তুলে ধরেছেন দারুন দক্ষতায়।
পরিচালক জানলেন, ছবিটি সংশোধিত করে তিনি ইউ টিউব এ দেবেন যাতে একটি সচেতনতার পরিবেশ সৃষ্টি হয়। আজকের দিনে যখন সবাই টাকার পেছনে ছুটছেন তখন শিব জয়সওয়ালের এই প্রচেষ্টা সমাজের প্রতি একটি নিদর্শন যার ছাপ সমাজে থেকে যাবে অনেকদিন।

কথায় ছবিতে কবি ও সাহিত্যিক

শুভাবরি ওয়েবডেস্ক ,১৬ মার্চঃআজ কলকাতা প্রেস ক্লাবে উদ্বোধন হল পরিচালক আব্দুল রৌউফের দুটি তথ্যচিত্র। সাহিত্যিক সুকুমার রুজ এবং উর্দু কবি ইরফান জাহিরের জীবন ভিত্তিক এই তথ্যচিত্র দুটিতে অজানা অনেক তথ্যই উঠে এল। উপস্থিত থেকে অনুষ্ঠানের মর্যাদা বাড়ালেন পার্বতি রুজ, সাহিত্যিক সুকুমার রুজের মা। সুদুর গ্রাম থেকে আসা একটি ছেলের বাহনধ সাহিত্য জগতে স্থান করে নেবার দীর্ঘ সংগ্রাম যেমন দর্শকদের অভিভূত করেছে, তেমনি অশ্রুসিক্ত করেছে মায়ের দুচোখও।

ছবি তৈরির মন্সিয়ানায় পারদর্শী রৌউফ সাহেবকে ধন্যবাদ না দিয়ে বলব, আপনি এগিয়ে যান সফলতার সিড়ি বেয়ে। পথ একদম পঙ্কিল হবে না।

মেদিনীপুরে কবিতা উৎসব

শুভাবরি ওয়েবডেক্স ১০মার্চ, ডা. বিবেকানন্দ চক্রবর্তী, মেদিনী পুর ঃ সম্প্রতি ‘মেদিনীপুর কবিতা একাডেমি’ সাড়ম্বরে অনুষ্ঠিত করল ‘মেদিনীপুর বাংলা কবিতা উৎসব ২০১৯’। মেদিনীপুর ফিল্ম সোসাইটি হল-এ ১০ই মার্চ, রবিবার, দুপুর ২টায় মাঙ্গলিক প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করে এই উৎসবের শুভ উদ্বোধন করেন রাষ্ট্রপতি-পুরস্কারপ্রাপ্ত জাতীয় শিক্ষক, রবীন্দ্র গবেষক ও কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক সম্মাননাপত্র প্রাপক ড.বিবেকানন্দ চক্রবর্তী। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কবি সিদ্ধার্থ সাঁতরা। আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর কবি হরিৎ বন্দোপাধ্যায় ও কবি সৌমেন শেখর-কে সংবর্ধিত করে কবিতা একাডেমি। অতঃপর উৎসবের উদ্বোধক তাঁর উদ্বোধনী বক্তব্যে কবিতা কি? ও কেন? এই বিষয়ে একটি মনোজ্ঞ বক্তব্য রাখেন। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেনঃ “কবিতা কিভাবে হয়ে ওঠে-কবি, তাত্ত্বিক, পাঠক সবাইকেই এই প্রশ্নের সামনে দাঁড়াতে হয়”। তিনি রবীন্দ্রনাথ, প্রমথ চৌধুরী, জীবনানন্দ দাশ, সুধীন্দ্রনাথ, টি.এস.এলিয়ট এইসব কবিদের কবিতা সম্পর্কিত মতামত উল্লেখ করে এই সিদ্ধান্তে আসেন যে কবিতা-কে স্বাচ্ছন্দ্যযুক্ত ও সহজবোধ্য হতে হবে। এবং সবশেষে বলেনঃ “কবিতা রহস্যময় তাই সুন্দর, কবিতা দুর্বোধ্য নয়, তাই আনন্দময়। অতঃপর সারা বাংলার ৬৫ জন আমন্ত্রিত কবি কবিতা পাঠে অংশগ্রহণ করেন। অপরাহ্নে একটি বিতর্কসভা অনুষ্ঠিত হয়। বিষয় ছিল ‘কবি নাকি, কবিতা, নাকি কবিতা একাডেমি’। এই বিতর্কসভাটি সঞ্চালনা করেন কবি সৌমিত্র রায়। বিতর্কসভায় অংশগ্রহণ করেন অধ্যাপক প্রভাত মিশ্র, কবি মানস কুমার চিনি, কবি বীরূপাক্ষ পান্ডা, কবি বিশ্ব বন্দ্যোপাধ্যায় ও কবি হরিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়। কবিতা একাডেমির প্রশাসনিক দিক নিয়ে আলোচনা করেন কবি সৌমিত্র রায়, কবি শ্রীকান্ত ভট্টাচার্য ও কবি বিশ্ব বন্দ্যোপাধ্যায়। সমগ্র অনুষ্ঠানটি নান্দনিক সঞ্চালনায় ধ্রুপদী সূত্রে বেঁধেছিলেন বাচিক শিল্পী আগমনী কর মিশ্র। সদ্য বসন্ত সমাগমে ১০ই মার্চ মেদিনীপুর শহর হয়ে উঠেছিল কবিতার শহর।

সাগরে মিলায় ঢেউ আবার ফিরবে বলে

শুভাবরি ওয়েবডেক্স, ২৬ ফেব্রুয়ারি, কলকাতা ঃ সাহিত্য সংস্থা জাগরণী কলকাতা প্রেস ক্লাবে অনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করল ” সাগরে মিলায় ঢেউ আবার ফিরবে বলে” নামক গবেষণামূলক গ্রন্থ।১৯৫০ সাল থেকে শুরু হওয়া দক্ষিণ সুন্দরবনের বিস্তির্ন এলাকা জুড়ে ‘ তেভাগা’ সংগ্রামের ইতিহাস ও তার গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রগুলিকে এই গ্রন্থে তুলে ধরা হয়েছে বলে জানান আয়োজকরা। গ্রন্থটি প্রকাশ করেন কবি ও প্রাবন্ধিক সব্যসাচী দেব, সাংবাদিক ও মানবাধিকার করমি নীলাঞ্জন দত্ত এবং বিজ্যানি মেহের ইঞ্জিনিয়ার। প্রত্যক্ষদর্শীদের বয়ান, সে সময়ের বিভিন্ন সংবাদপত্রের রিপোর্ট, ছবি নিয়ে সৃষ্ট এই গ্রন্থ।

স্মরণে শ্রীদেবী

শুভাবরি ওয়েবডেক্স, ২৫ফেব্রুয়ারী, কলকাতা: বাগমারী মহিলা মহল সোসাল ওয়েল অরগানাইজেশান এবং Fan of film actress femous Icon Sreedevi তরফ থেকে শ্রীদেবী জীর ১ম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধা জানাতে এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন হয়েছিল। বাগমারী দিগন্ত ব্যামাগারে উপস্থিত ছিলেন সংস্থার কর্নধার মিনু দত্ত, প্রধান অতিথি হিসেবে ১৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর অমল চক্রবর্তী, সমাজসেবক দিলীপ সিং। এখানে দুস্থ মানুষদের ৫০ টি শাড়ি ও ৫০ টি কম্বল বিতরনের পাশাপাশি পথশিশু ছেলে মেয়েদের হাতে মিষ্টি ও চকলেট দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে শ্রীদেবী অভিনিত বিভিন্ন সিনেমার গানের ওপর নৃত্যানুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। পরিবেশনায় ছিলেন নিহারিকা মুখার্জি ডান্স সম্প্রদায়।

ঘায়েল

শুভাবরি ওয়েবডেক্স, ১২ ফেব্রুয়ারি, কলকাতাঃ পারিবারিক শত্রুতার মাঝে প্রেমের ফুল ফোটানো সেখান থেকে ভুলবোঝাবুঝির ফলে শত্রুতা এবং পুনরায় প্রেমে ফিরে আসা, রুদ্র এন্টারটেইনমেন্টর নতুন বাংলা সিনেমা ঘায়েল। এক সাংবাদিক সম্মেলনে এই জমজমাট গল্পের কথা বলেন ছবির পরিচালক মিন্টু কর্মকার। উপস্থিত ছিলেন ছবির বিভিন্ন কলাকুশলিরাও। অভিনয় করেছেন রাজু দত্ত, মেঘনা হালদার, সুজয় ঘোষ সাথে কিছু নতুন মুখ সহ প্রমুখ।
চাারটি গান নিয়ে খুব তাাড়াতাড়ি এর শুটিং শেষ করে সিনেমা হলে আসতে চলেছে।

২৭ ঘন্টা টানা গজল।

শুভাবরি ওয়েবডেক্স, ১২ ফেব্রুয়ারি, কলকাতাঃ একল বিদ্যালয় অর্থাৎ একক শিক্ষক বিদ্যালয়কে সাহায্যার্থে সারা দেশে তার ব্যাপ্তি এবং বিশেষ করে আদিবাসী সমাজের শিক্ষাকে প্রসারের জন্য আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি এবং ১৬ ফেব্রুয়ারি মোট ২৭ ঘন্টা ধরে গজল গাইবেন ৬২ বছরের শিল্পী রঞ্জন দেবনাথ “রঞ্জ”। ইয়ে মেরা ইন্ডিয়া র হাত ধরে এই অনুষ্ঠান হবে কলকাতার JW Marriott এ।
অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করবেন রাজ্যপাল শ্রী কেশরিনাথ ত্রিপাঠী। বিশেষ করে শিক্ষা এবং সনির্ভরতা কে এগিয়ে নিয়ে যাওয়াই এই অনুস্থানের মূল উদ্দেশ্য। এর আগে রঞ্জন বাবু আগ্রাতে ২০০৭ তে ২৪ ঘন্টা গজল গেয়েছেন। এক সাংবাদিক সম্মেলনে একথা জানান রঞ্জন দেবনাথ এবং উদ্যোক্তা মোনা শাহ।

গান ভালোবেসে গান

শুভাবরি ওয়েবডেক্স, ৯ ফেব্রুয়ারি, কলকাতাঃ ছোটবেলা থেকে গানের পরিবেশে বড় হয়ে ওঠা, রবীন্দ্রনাথের গান, কবিতা, গল্পের প্রতি আকর্ষনবোধ করা শিল্পী কুন্ডুকে একযোগে সংগীত শিল্পী হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে সাহায্য করেছে। প্রাক্তন পুলিশ অফিসারের মেয়ে শিল্পী পেশায় স্কুল শিক্ষিকা।

http://shubhabori.co.in/inshot_20190209_160543544/

কলকাতা থেকে বহু দুর মালদা শহরে থেকে সংগীত চর্চা চালিয়ে গিয়েছেন। গ্রুমি হং এর জন্য পাশে পেয়েছেন রাজা চট্টোপাধ্যায়কে। নামে একটি ইউ টিউব চ্যানেল ও খুলেছেন শিল্পী কুন্ডু। কলকাতা প্রেস ক্লাবে অনারম্বর অথচ আন্তরিকতাপূর্ণ একটি অনুষ্ঠানে তার চারটি গান প্রকাশ পেল “তোমায় গান শোনাবো” শির্ষক সিডিতে । রবীন্দ্র ঘরানার গানে আগ্রহী শিল্পী গান ভালোবেসে, রবীন্দ্রনাথকে ভালোবেসে ভবিষ্যতে যে একজন অসাধারণ কন্ঠশিল্পী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হবেন, সেটা এই চারটি গানের গুনমান থেকেই অনুমান করা যায়।

বিনি সুতোয় বোনা

শুভাবরি ওয়েবডেক্স, ২৪ জানুয়ারী, কলকাতাঃ নারীদের জীবন বিভিন্ন পর্যায় দিয়ে যায়। শিশু থেকে কিশোরী এবং সেখান থেকে একজন পুর্নাঙ্গ নারী হয়ে ওঠার পর্যায়গুলিকে গানের মাধ্যমে তুলে ধরলেন সংগীতশিল্পী শ্রীমতি জয়তী চক্রবর্তী।
প্রেস ক্লাবে এক সাংবাদিক সম্মেলনে তার গানের সিডি প্রকাশ হল – “বিনি সুতোয় বোনা”। মোট ৬টি গান রয়েছে কৃষ্টি প্রডাকশনের নিবেদিত এই সিডিতে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এই অ্যালবামের সুরকার কল্যান সেন বরাট, শুভ দাশগুপ্ত (গানের কথা), আলকানন্দা রায় প্রমুখ। একজন মেয়ে এবং তার মা এই দুজনের মধ্যে যে সম্পর্ক গড়ে ওঠা সম্পর্ককে অন্য মাত্রা দিয়েছে এই গানগুলি।

বই প্রকাশ

শুভাবরি ওয়েবডেক্স,২১ জানুয়ারী, কলকাতাঃ বয়স মাত্র ৯ মাস, তার মাঝেই ১০ টি বই প্রকাশ। তার মধ্যে আজ প্রেস ক্লাবে তিনটি বই প্রকাশ করল মনন ক্রিয়েশন । সন্দীপ দাস, শম্পা ডি ব্যানার্জি এবং প্রসূণ বাগচী এই তিনজন নবীন কবি।উপস্থিত ছিলেন সাহিত্যিক বিনোদ ঘোষাল, কবি সৌমজিৎ আচার্য, প্রকাশক লেখক শমীক গোস্বামী। আগামী বইমেলা এই বইগুলি পাওয়া যাবে।

নতুনদের সুযোগ করে দিতে এগিয়ে এলো এমারেল্ড।

শুভাবরি ওয়েবডেক্স, ১৯ জানুয়ারী, কলকাতাঃ মডেল হওয়া যাদের স্বপ্ন, সেই স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করতে এগিয়ে এল এমারেল্ড ওয়াল্ড। এক সাংবাদিক সম্মেলনে তাদের কর্মকান্ড এবং আগামী দিনের পরিকল্পনা সম্পর্কে জানান কর্নধার নিরাজ কুমার সিং। তিনি বলেন, ” মডেলিং দুনিয়াতে আমরা সর্বদায়ি চেস্টা করছি যাতে নতুন মুখ আনতে পারি।যাদের স্বপ্ন মডেল দুনিয়াকে কাছ থেকে দেখা তাদের আমরা তুলে আনার কাজে লিপ্ত। বিশেষ করে আমাদের লক্ষ্য একটু গ্রামের দিকে। আমরা এ বছর আমাদের মনোনিত কিছু মডেলদের নিয়ে ক্যালেন্ডার প্রকাশ করলাম। যার ফলে নতুনরা নিজেদেরকে প্রচার করার সুযোগ পাবে”। আগামী দিনে ফিচার ফিল্ম করার স্বপ্নও দেখছেন নিরাজ বাবু।

সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা

শুভাবরি ওয়েবডেক্স, ৩০ ডিসেম্বর, কলকাতা: সম্পুর্ণ একক মহিলাদের প্রচেষ্টায় বাগমারি মহিলা সোশাল ওয়েলফেয়ার অরগানাইজেশন হিন্দি সিনেমা জগতের দুই তারকা চাঁদনি অর্থাৎ শ্রীদেবী কে শ্রদ্ধা জানাতে এবং চিরতরুণ রাজেশ খান্নার ৭৬ তম জন্মদিন উপলক্ষে আজ কলকাতার মহাজাতি সদনে এক সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার আয়োজন করে । যার প্রধান উদ্যোক্তা মিনু দত্ত।

http://shubhabori.co.in/inshot_20181231_100518145/

মুখ্য অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন অভিনেত্রী পদ্মিনী কলাপুরি। এছাড়াও ১৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর অমল চক্রবর্তী, ২৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ইলোরা সাহা সহ প্রমুখ । অভিনেত্রী পদ্মিনি কলাপুরি মিনু দেবীর এই প্রয়াসকে স্বাগত জানান।

পোড়া বাঁশি

শুভাবরি ওয়েবডেক্স, ২০ডিসেম্বর, কলকাতা ঃটি এম পি প্রোডাকশনের নতুন বাংলা ছবি পোড়া বাঁশী। সুটিং শুরু হবে জানুয়ারী মাসে। পরিচালক শুভম দাস এক সাংবাদিক সম্মেলনে সিনেমার গল্প সন্মন্ধে জানান,
—” এটি গ্রামের এক সাধারণ সরল সিধে ছেলের গল্প। সরল ছেলে বলে গ্রামের কেউ তাকে পাত্তা দেয় না। ছেলেটির জীবনে বন্ধু বলতে শুধু তার বাঁশী। এরপর তার জীবনে আসে একজন মেয়ে”। আদৌ কি তাদের প্রেম পূর্নতা পাবে?
২ ঘন্টার এই ছবি না দেখলে একথা জানা সম্ভব নয়।
ছবির প্রযোজনা: এম দাস, গীতিকার: গৌতম সুস্মিত, মুখ্য চরিত্রে: অর্ক, কৌশিক, চাঁদনী।এছাড়া আছেন বিশ্বজিত, আনামিকা সাহা, মনোজ মিত্র, শুভম দাস প্রমুখ।

বাস্তবমুখী দুটি স্বল্পদৈর্ঘ্যের সিনেমা

প্রত্যুষ কুমার ঘোষ এবং দীপান্বিতা বোস,  সিনেমার একটি দৃশ্যে ।

 শুভাবরি ওয়েবডেক্স, 17 ডিসেম্বর: বাস্তব হল, জন্মিলে মরিতে হবে, অমর কে
কোথা কবে। এই বাস্তবকে মাথায় রেখে ডা: চন্দন চ্যাটার্জী তৈরী করছেন তার স্বল্পদৈর্ঘ্যের সিনেমা The Final Destination । ইংরেজী ভাষায় তৈরী এই সিনেমার অনুভূতি হল মৃত্যুই হল পরম সত্য। অথচ আমবা পার্থিব জিনিষের পিছনে ছুটে বেড়াচ্ছি।
চন্দন চ্যাটার্জীর চিত্রনাট্য ও পরিচালনায় এই সিনেমার সহকারী পরিচালক : অভিজিৎ সাহা, ক্যামেরায়: সনৎ দাস, মেকআপ : রতন চক্রবর্তী সম্পাদনা: অভিজিৎ পোদ্দার, প্রযোজনা: শুভাবরি ম্যাগাজিন।
অভিনয়ে : প্রত্যুষ কুমার ঘোষ, দীপান্বীতা বোস ও অসিত চক্রবর্তী।
সম্প্রতি চুচুড়ায় সিনেমার চিত্রগ্রহনের কাজ শেষ করে চুচুড়াবাসী এবং তার পুর চেয়ারম্যান এর নিস্বার্থ সহযোগীতার কথা স্বীকার করে নেন পরিচালক।

একই সাথে পরিচালক তার অপর একটি স্বল্পদৈর্ঘ্যের সিনেমা ” ভাঙা সেতু” র চিত্রগ্রহনের কাজ ও শেষ করেন। এই সিনেমার বিষয়বস্তু হল ‘ বিবাহ বিচ্ছেদের ফলে শিশুদের পরিনতি’।
সিনেমার কাহিনি ও চিত্রনাট্য ভা: চন্দন চাটার্জী, সহকারী পরিচালক : অভিজিৎ সাহা, ক্যামেরায়: সনৎ দাস, সহকারি: প্রবীর,মেকআপ : রতন চক্রবর্তী সম্পাদনা: অভিজিৎ পোদ্দার, প্রযোজনা: শুভাবরি ম্যাগাজিন।
অভিনয়ে: আরাধ্যা দাস, সুদীপ্ত ভট্টাচার্য, দীপান্বীতা বোস।

সেরা লড়াইয়ে লোপামুদ্রা

  শুভাবরি ওয়েবডেক্স: প্রতিকুলতাকে ঠেলে সরিয়ে এগিয়ে চলার নামই জীবন । সফলতা তাকেই বলে ।লোপামুদ্রা মন্ডল ।বহরমপুর থেকে উঠে আসা এই লড়াকু মহিলা আজ সংবাদ শিরোনামে ।
কলকাতা প্রেস ক্লাবে এসে শোনালেন ইংরেজিতে স্নাতকোত্তর এই মহিলা ।সদ্য সমাপ্ত MRS INDIA IAB 2018 এর 1st Runner up হয়ে গোয়া থেকে কলকাতা প্রেস ক্লাবে এসে উজ্জীবিত করে গেলেন মুষড়ে পড়া অন্যান্য মানুষদের । সোশ্যাল ভায়োলেন্সের শিকার হয়েও পিছিয়ে আসেনি লড়াইয়ের পথ থেকে । বর্তমানে তিনি “Fight Crime Against Woman” এর ব্রান্ডি অ্যাম্বাসেডর । মহিলাদের নিজস্ব পত্রিকা ‘ শুভাবরি ‘ এই নরীকে শ্রদ্ধা জানায়।

সিডি প্রকাশ 

শুভাবরি ওয়েবডেক্স: মাইকেল জ্যাকসন এবং কিশোর কুমারের কাছ থেকে অনুপ্রেরণা পেয়ে গান গেয়ে নিজের কম্পোজ, সুরে গানের সিডি “দিওয়ানা” প্রকাশ করলো ইমরান আহমেদ ।

কলকাতা প্রেস ক্লাবে শুভাবরিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে নিজের সিডি সম্পর্কে বললেন শিল্পী নিজেই ।

http://shubhabori.co.in/entertainments/vid-20181212-wa0013/

ফিল্মোৎসব, ২০১৯ (আয়োজনে চিনসুরা সিনে ক্লাব)


শুভাবরি ওয়েবডেক্স:ছবি দেখতে দেখতে আমরা ছবির পরিচালক হয়ে যাই । ছবি তখন আমাদেরই । ছবি দিয়ে আমরা তখন পথ পার করি । যেন গত জীবনের স্মৃতি ছবির ভিতর দেখি । পেরিয়ে আসি ঝড়, টাওয়ার, রেলের আওয়াজ, মাঠের কালো মেঘ, নিশ্চিন্দিপুর, ভাঙা আয়না, পাহাড়, উপত্যকা, খবরের কাগজ আর সময় । যেন আমাদের অনন্ত চিন্তার চাদরে ছবি একটা একটা করে নকশা তৈরি করে আমাদের সচেতনে বা অচেতনে।
আমাদের প্রতিনিয়ত দেখার মধ্যে সিনেমা চলে । দেখতে দেখতে দেখা মাধ্যমটাও সিনেমার রূপ নেয় । সৌধের ভাস্কর্যের মত দেখাও স্বয়ংসম্পূর্ণ, সূক্ষ আর আত্ম-ক্রিয়াশীল হয়ে ওঠে । ইরানীয়ান পরিচালক আব্বাস কিওরাস্তামীর ‘Shirin’ দেখতে দেখতে মনে হয় যারা ছবি দেখছে তারাই যেন গোটা ছবিটার বাহক, অভিনেতা আর শ্রোতা । তারাই সমগ্র ছবিটাকে বয়ে নিয়ে চলে । পরিচালকের দেখার বাইরে বেরিয়ে এসে আমরা ক্যামেরায়-দেখা চরিত্রের মুখের বয়ান পাই । তাদের মুখের প্রকাশভঙ্গির ভাস্কর্য সিনেমার মধ্যেকার বাস্তবতা আর দর্শকের বাস্তবতাকে গুলিয়ে দেয় । দুইয়ের মধ্যে সেতু ভেঙে যায়, একে অন্যকে প্রশ্ন করে ।

তাই সেইসব প্রশ্ন আর দর্শকের দেখার ওপর আসা রেখে আমরা, চিনসুরা সিনে ক্লাব, আবার ফিরছি এবার নতুন বছরে ২০১৯ -এ ২৪শে ফেব্রুয়ারি, বিকেল ৪ টে কিশোর প্রগতি সংঘে । এবারে আমাদের শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের জন্য আমরা ফিল্ম নেওয়া শুরু করেছি । যারা ছবি করিয়ে তারা ফিল্ম জমা দিতে পারো/পারেন ।

ফিল্ম পাঠানোর জন্য মেল আইডি :
filmotsav.ccc@gmail.com (ফিল্ম জমা দেওয়ার শেষ দিন ২৭শে জানুয়ারি, ২০১৯)। ফিল্ম পাঠানোর জন্য কোনো খরচ নেই। এই ফেস্টিভ্যাল বরাবরের মতনই বিনামূল্যে)

সচেতনতা বাড়াতে কুইজ প্রতিযোগীতা  ।

৮ ডিসেম্বর ২০১৮ শুভাবরি,ওয়েবডেক্সঃ   পরিবেশ , বন্যপ্রাণী সংরক্ষণবিষয়ে ছাত্র ছাত্রীদের মধ্যে সচেতনতা বাড়াতে আজ কলকাতার হেরিটেজ স্কুলে একটি কুইজপ্রতিযোগীতার আয়োজন করা হয়েছে। কলকাতার YUVIS  রোটারি ক্লাব , অ্যাডামাসইন্টারন্যাশনাল স্কুল , SAEVUS  নামক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা এবং হেরিটেজস্কুলের যৌথ উদ্যোগে ৪র্থ  বার “ NATURE QUIZ”    প্রতিযোগীতার  আয়োজন করা হয়েছিল। কলকাতার ৪১ টি স্কুল এবং ১২৩জন পঞ্চম , ষষ্ঠ এবং অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রছাত্রী অংশগ্রহন করে। উপস্থিত ছিলেনপ্রধান অতিথি আভিনেত্রী  শ্রীমতী মেঘনাহালদার ,আই পি ডি জি  শ্রী ব্রজগোপালকুণ্ডু , YUVIS এর সভাপতি শ্রী শরদ খাটোর প্রমুখ,কুইজ মাস্টার হিসাবে ছিলেন শ্রী রাজীব সান্যাল । প্রতিযোগিতায়ে প্রথম দিল্লিপাবলিক স্কুল ( রুবি পার্ক ) দ্বিতীয় হেরিটেজ স্কুল এবং যুগ্ম ভাবে তৃতীয় এম . পি.বিড়লা এবং বিড়লা হাই স্কুল । উপস্থিত অতিথিরা বিজয়ী স্কুলের হাতে পুরষ্কার তুলেদিলেন।     – ছবি এবং লেখন দেবাঞ্জন দাস।

লেক টাউন ফিল্ম ফেস্টিভাল

সাহিত্যজগতের আঁতুড়ঘর যদি লিটিল ম্যাগাজিন হয়, তাহলে সিনেমা জগতের আঁতুড়ঘর হল শর্টফিল্ম । আগামীদিনে প্রতিভাবান শিল্পী, পরিচালকদের তুলে আনার জন্য নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে লেক টাউন ঐক্যতান। এবার দ্বিতীয় বর্ষে পা রাখল তাদের শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভাল।

১৫ ই ডিসেম্বর থেকে এই ফেস্টিভাল শুরু হবে। উপস্থিত থাকবেন বিধায়ক সুজিত বোস , চিত্রপরিচালিকা শতরুপা সান্যাল। দুদিন ব্যাপি এই ফেস্টিভালে নির্বাচিত সেরা শর্ট ফিল্মগুলিকে দেওয়া হবে আকর্ষণীয় আর্থিক পুরষ্কার , শংশাপত্র।

 

ভারত সংস্কৃতি উৎসব ২০১৮

ওয়েব ডেস্ক : দেশের ঐতিহ্যবাহী শিল্প, কলা, কৃষ্টি কে স্বমহিমায় তুলে ধরতে “১৬ তম ভারতীয় কলা ও সংস্কৃতি উৎসব” আজ আমাদের সামনে। হিন্দুস্থান আর্ট এন্ড মিউজিক সোসাইটি এবং অন্তরা সংগীত বিদ্যালয়ের যৌথ উদ্যোগে অনুষ্ঠিতব্য এই উৎসবের আগাম সংবাদ জানাতে আজ প্রেস ক্লাবে উপস্থিত ছিলেন সংস্থার সাধারণ সম্পাদক এবং ভারত সংস্কৃতি উৎসব এর প্রান পুরুষ পন্ডিত প্রসেনজিৎ পোদ্দার। সাথে ছিলেন বর্ধমানের সাংসদ ড. মুমতাজ সংঘামিতা, নৃত্যশিল্পী গিরিধারী নায়েক, কলাবতী দেবী প্রমুখ। প্রসেনজিৎবাবু বলেন, “১১ তম সারা ভারত ধ্রূপদী সংগীত,নৃত্য,লোকনৃত্য,আবৃত্তি প্রতিযোগিতার ” সাথে আন্তর্জাতিক স্তরে ভারতীর কলা-সংস্কৃতির উৎসব অনুষ্ঠিত হচ্ছে বর্ধমান টাউন হলে ১৫-১৯ ডিসেম্বর এবং জোড়াসাকো ঠাকুরবাড়িতে। এ বছর আমেরিকা, জাপান,প্যারিস, মালোয়শিয়া সহ১০ টি দেশের শিল্পীরা অংশ নিচ্ছেন।

 

Refraction – একটি প্রয়াস

অন্ঞ্জনা প্রডাকশনের প্রথম বাংলা শর্টফিল্ম “রিফ্রাকশন” মুক্তি পেলো এবছরের কলকাতা আন্তঃজাতীক ফিল্ম ফেস্টিভেল । ছবির প্রযোজক ও অভিনেতা শ্রী কৌশিক দাস যিনি নিজে একজন প্রবাসী বাঙ্গালী । একজন আদিবাসী মানুষের সাথে একজন শরনার্থীর কথপকথন নিয়ে জমজমাট গল্প ।
এই ছবি তৈরী করতে গিয়ে তার যে অভিজ্ঞতা সেটিও তিনি বলেন। তার ঝুলিতে রয়েছে বহু আন্তজাতীক পুরষ্কারও।
কৌশিক বাবুর সাক্ষাৎকার নিলেন আমাদের প্রতিনিধি । । ।

Baccho Dhikhao Chalke

দুষ্টুমির ছেলেবেলা